মুসলিম যুবকের সঙ্গে প্রেম করায় মেয়েকে ‘জীবন্ত পুড়িয়ে’ হত্যা

আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে বেশিরভাগ পরিবারই নিজেদের ধর্ম ও জাত বা বর্ণের মধ্যেই বিয়ে-শাদীর সম্পর্ক গড়তে পছন্দ করেন। নিজের ধর্ম, জাত বা বর্ণের বাইরে গিয়ে বিয়ে করার পরিণাম অনেক সময় ভয়ংকর বা সহিংস হয়ে ওঠারও উদাহরণ রয়েছে।

ঠিক তেমনি এক ঘটনার জন্ম দিয়েছে ভারতের উত্তরপ্রদেশ। যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যে দেড় লাখ টাকায় খুনি ভাড়া করে এক তরুণীকে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে তার পরিবারের বিরুদ্ধে। ধারণা করা হচ্ছে, ঘটনাটি সম্মান রক্ষার্থে খুন।

হতভাগ্য ওই তরুণীর নাম রঞ্জনা যাদব। এক মুসলিম যুবকের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠায় পরিবারের লোকজন তাকে এভাবে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে। খবর ইয়েনি সাফাকের।

পুলিশ জানায়, ভাড়াটে ওই খুনির নাম বরুণ তিওয়ারি। ভিন্ন ধর্মের যুবককে ভালোবাসায় তাকে জ্যান্ত পুড়িয়ে হত্যার জন্য ভাড়াটে ওই খুনিকে দেড় লাখ রুপি দেয় মেয়েটির পরিবার।

এই নৃশংস হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে তরুণীর বাবা, ভাই ও ভগ্নিপতিসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত সোমবার তাদের গ্রেফতার করা হয়।

ভাড়াটে খুনি বরুণ তিওয়ারিকে হন্নে হয়ে খুঁজছে পুলিশ। হত্যার শিকার তরুণরি বাবা পুলিশের কাছে মেয়েকে ভাড়াটে খুনি দিয়ে পুড়িয়ে মারার কথা স্বীকার করেছেন।

পুলিশকে তিনি বলেন, তার মেয়ে এক মুসলিম যুবকের সঙ্গে প্রেম করছিল। নিষেধ করার পরও ফিরে না আসায় ছেলে ও জামাতাকে সঙ্গে নিয়ে মাহুলি গিয়ে ওই খুনিকে ভাড়া করে আনা হয়।

মুখ ও হাত বেঁধে মোটরসাইকেলে করে মরুভূমির কাছে জিগিনা নামে একটি গ্রামে নিয়ে ঘরে বন্দি করে তাতে আগুন ধরিয়ে দিয়ে জ্যান্ত পুড়িয়ে মারা হয় তাকে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *