মোংলা বন্দরে বাণিজ্যিক জাহাজের আগমন বেড়েছে

সারাবাংলা

মিজানুর রহমান, মোংলা থেকে:
বাগেরহাটের মোংলা বন্দরের উন্নয়নে গৃহিত প্রকল্পগুলো দ্রুত বাস্তবায়নের ফলে বাণিজ্যিক জাহাজ আগমন বেড়েছে।যদিও বন্দর কর্তৃপক্ষের আশা ছিল ২০২১ সালে এক হাজার আসবে কিন্তু সেই আশা পূরণ না হলেও রাজস্ব আয় ৩৪০ কোটি টাকার বেশি ছাড়িয়ে গেছে। আর এটাকে মোংলা বন্দরের সবচেয়ে বড় অর্জন হিসেবেই দেখছেন বন্দরের কর্মকর্তা- কর্মচারীরা।মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ সুত্রে জানা গেছে,বন্দর প্রতিষ্ঠার ইতিহাসে একবছরে ৯৭০ টি জাহাজ আগমনের এটাই প্রথম রেকর্ড।এর আগে গত গত ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বন্দরে মোট জাহাজ ভিড়েছে ৯১২ টি। বিদায়ী অর্থবছর অর্থাৎ ২০২০- ২১ সালে মোট জাহাজ আগমনের সংখ্যা ৯৭০ টি। করোনাকালে সারাবিশ্বের সমুদ্র অর্থনীতি যখন বিপর্যস্ত তখন মোংলা বন্দরের সাফল্যে সবাই অবাক হয়েছেন।সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়নের কারনে এমনটা সম্ভব হয়েছে বলে এ প্রতিবেদককে জানিয়েছেন বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ মুসা। তিনি আরও বলেন,করোনার ঝুঁকি মাথায় নিয়েও আমরা বন্দরের কার্যক্রম চালু রেখেছি। বন্দরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাপ্তরিক কার্যক্রমের পাশাপাশি অপারেশনাল কার্যক্রমে শ্রম দিয়ে এ প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করেছে।সবমিলিয়ে সকলের আন্তরিকতার কারনে মোংলা বন্দরের বহুমূখী অর্জন সম্ভব হয়েছে।বন্দর কর্তৃপক্ষের বোর্ড ও জনসংযোগ বিভাগের সচিব মো. শাহবাজ গোলদার জানান,বন্দর প্রতিষ্ঠার ৭০ বছর পার হলেও এত বিপুল সংখ্যক জাহাজ বন্দরে আসেনি। বন্দরের উন্নয়নে বর্তমান সরকারের নানামুখী উন্নয়ন কার্যক্রম দ্রুত বাস্তবায়ন হওয়ায় বন্দরে বেশী সংখ্যক জাহাজ আগমনের পাশাপাশি আমদানি রপ্তানি বাণিজ্যে এক নতুন অধ্যায় রচিত হয়েছে। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্মচারী সংঘের সাধারন সম্পাদক মোঃ ফিরোজ জানান,বর্তমান সরকারের ধারাবাহিক উন্নয়নের কারনে বন্দরে জাহাজ বেড়েছে। স্থানীয়দের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে মোংলা বন্দর ভূমিকা রাখবে বলে আমার বিশ্বাস।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *