মোহনগঞ্জে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড নিয়ে আপত্তিকর বক্তব্য : বিক্ষোভ মিছিল

সারাবাংলা

নেত্রকোনা প্রতিনিধি:
প্রধানমন্ত্রীর সাবেক একান্ত সচিব, বাংলাদেশ বিমানের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল হাসানের নানা উন্নয়ন কর্মকান্ড নিয়ে বিতর্কিত আপত্তিকর বক্তব্য দেয়ার প্রতিবাদে মোহনগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও মোহনগঞ্জ নাগরিক আন্দোলন গতকাল বুধবার এ সমাবেশের আয়োজন করে। আবদুল হান্নান রতনকে মোহনগঞ্জে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়।
প্রধানমন্ত্রীর সাবেক সচিব সাজ্জাদুল হাসানের চেষ্ঠায় জেলা সদর, মোহনগঞ্জসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ হয়েছে। এর মধ্যে শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়, নেত্রকোনা মেডিক্যাল কলেজ, মোহনগঞ্জে শিয়ালজানি খাল খনন ও সৌন্দর্য বর্ধন, আদর্শনগরে পর্যটন কেন্দ্র স্থাপন, শৈলজারঞ্জন সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপন উল্লেখযোগ্য। ওই সমস্ত কাজ নিয়ে মোহনগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের সদস্য আবদুল হান্নান রতন গত ২০ ফেব্রুয়ারি উপজেলার বিজ্ঞান বাজারে এক সভায় বিতর্কিত বক্তব্য প্রদান করেন। এরই প্রতিবাদে বুধবার উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও মোহনগঞ্জ নাগরিক আন্দোলন বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলকারীরা মোহনগঞ্জ বাজারের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিল শেষে মুক্তিযোদ্ধা মুক্তমঞ্চে মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার আবদুল হকের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- মুক্তিযোদ্ধা মীর্জা আবদুল গণি, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান দীলিপ দত্ত, ইউপি চেয়ারম্যান আবু বকর ছিদ্দিকী, নারী নেত্রী আকিকুন্নেছা বিউটি, যুবলীগ নেতা মোফাজ্জল হোসেন, মাহবুবুর রহমান পিয়াস, ইয়াসির আরাফাত রনি প্রমূখ। এর আগে উপজেলার আদর্শনগওে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে এলাকাবাসী। সমাবেশ থেকে আবদুল হান্নান রতনকে মোহনগঞ্জে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়।
মোহনগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের সদস্য আবদুল হান্নান রতন বলেন, সাজ্জাদুল হাসান একজন সম্মানী মানুষ। তাকি নিয়ে অপত্তিকর বক্তব্য দেওয়ার সাহস আমার নেই। তিনি এলাকায় কিছু কাজ করেছেন। ওই সমস্ত কাজের বিষয়ে আমি কথা বলেছি। স্থানীয় কিছুলোক ওই বক্তব্যকে বিকৃত করে আমার বিরুদ্ধে মিছিল সমাবেশ করছে এবং নানা অপ-প্রচার চালাচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *