মৌ-পিয়াসাদের কর্মকাণ্ডে বিব্রত শাহনাজ খুশি

বিনোদন

ডেস্ক রিপোর্ট : সম্প্রতি নানা অপকর্মে যুক্ত থাকার অভিযোগে সম্প্রতি ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা ও মরিয়ম আক্তার মৌসহ কয়েকজন মডেলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গোয়েন্দারা বলছে, তারা দিনের বেলায় ঘুমাতেন এবং রাতে এসব কর্মকাণ্ড করতেন।

মডেল নামধারী এসব রাতের রানিদের বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের জন্য বিব্রত গোটা শোবিজ অঙ্গণ। তাদেরকে আগাছা হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি। সোমবার নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে তিনি এই মন্তব্য করেন। সেখানে তিনি লিখেছেন, দুই-চারটা নাটক বা বিজ্ঞাপনের এক কোণায় অংশ নিলেই সে মডেল বা অভিনেত্রী হয়ে যায় না।

পাঠকদের জন্য শাহনাজ খুশির সেই স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে দেওয়া হলো-

‘একজন মানুষ হঠাৎ কিছু টাকা-ত্রাণ বিতরণ করে,অথবা মেম্বার-চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে কোনো রাজনৈতিক দলে নাম লেখালেই যেমন রাজনীতিবিদ হয়ে যায় না! তেমনি কেউ কোনো সুন্দরী প্রতিযোগীতায় আবেদন করেছিল, অথবা সম্পর্কের সুবাদে বা টাকা-ক্ষমতার জোরে ২-৪ টা নাটক, বিজ্ঞাপনের কোনো একটা কোণায় অংশগ্রহণ করলেই সে মডেল বা অভিনেত্রী হয়ে যায় না। এখন তো কারো অভিনয় করার শখ থাকলেই প্রোফাইল ফাইল-আপ করে মডেল-অভিনেত্রী দিয়ে।’

‘রাজনীতিবিদ’, ‘অভিনেত্রী-মডেল’- এ বিশেষণগুলোই বিশেষিত হওয়ার জন্য নিজেকে সমৃদ্ধ করতে হয়! লোভ সংবরণ করে রোজ একটু একটু করে সীমাবদ্ধ অন্ধকারকে দুহাতে পেছনে ঠেলেঐতিহ্যের আলোর নিচে গিয়ে দাঁড়াতে হয়! মানুষের ভালোবাসার পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হয়! প্রতিদিনের চর্চায় অভিনেত্রী/রাজনীতিবিদ হয়ে উঠতে হয়। ধারণ করতে, বহন করতে হয় তা উঠাবসা, কথা, পোশাক, রুচি, পরিমন্ডল, পরিবার, দর্শন, ইত্যকার যাবতীয় সব কিছুতে! আপনি বহন করবেন আপনার আর্দশ, আর জনগণ বহন করবে আপনার আকার/প্রকার/সত্য।’

‘এটাই সত্য! তাহলে কেন নিউজগুলো প্রতিদিন এমন হচ্ছে! আজ সকালে মডেল ‘মৌ’ দেখে রীতিমত ঘাবড়ে গেলাম! অভিনেত্রী থানায় দেখে কুন্ঠিত হয়ে যায়। বার বার একই হেডিং-এ বিব্রত হয়, অভিনয়/মডেলিং পেশায় থাকা মানুষের পরিবার! কারো ব্যাক্তিগত উশৃংখলতাকে এত প্রচার করারই বা কী আছে? তাও কিনা যখন দেশে প্রতিদিন গড়ে ২৩০ থেকে ২৪০ জন মানুষ মারা যাচ্ছে! ডেংগুসহ চিকিৎসা ব্যবস্থার সীমাবদ্ধতা নিয়ে দিশেহারা সারা দেশের মানুষ! প্রিয়জন হারিয়ে শান্তনার জায়গা নাই কারো! মৃত্যু এখন সংখ্যা শুধু! সেখানে প্রহসনের এই নিউজগুলো এত ফলাও করার কী এত প্রয়োজন আছে!’

‘ভাইজানেরা,আপনারা যাদের নিউজ নিয়ে এত হামলে পড়েছেন,তাদেরকে আপনাদের এই নিউজের আগে ওই পরিচয়গুলোতে কেউ চিনতো না। মিডিয়া পঁচলে দেশ আলোকিত হবে না! মিডিয়াই দেশের একটা ঐতিহ্যের আলো ধরে রাখে, বহন করে। পারলে সে আলোটুকু রক্ষা করেন। এসব আগাছা নিরবে বেছে ফেলেন। আর হ্যাঁ, আগাছা কিন্তু আগাছাই! এর কোনো আলাদ নাম নাই, না সংস্কৃতিতে, না রাজনীতিতে।’

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *