যুক্তরাজ্যে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন ব্যবহারে বাধা নেই

আন্তর্জাতিক

অনলাইন ডেস্ক: অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার বিজ্ঞানীদের উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন যুক্তরাজ্যে ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এটিকে একটি যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ সিদ্ধান্ত যুক্তরাজ্যে করোনার টিকা প্রয়োগে জনজীবনকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে ব্যাপক প্রসার ঘটাবে।

ব্রিটেন ও সুইডেনের বিখ্যাত ওষুধ তৈরিকারী প্রতিষ্ঠান অ্যাস্ট্রাজেনেকার কাছ থেকে যুক্তরাজ্য ১০০ মিলিয়ন ডোজ অর্ডার করেছে যা দেশের ৫০ মিলিয়ন জনগণকে দেওয়া হবে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি তাদের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। খবরে বলা হয়েছে; অনুমোদনকারীরা বলেছেন, ভ্যাকসিনটি নিরাপদ এবং কার্যকর।

চলতি বছরের শুরুতেই অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা ভ্যাকসিনটি উদ্ভাবন করে। গত এপ্রিলে এটি পরীক্ষার জন্য একজন সেচ্ছাসেবীর উপর প্রয়োগ করা হয়। পরে এক ক্লিনিকাল ট্রায়ালে টিকাটি কয়েক হাজার সেচ্ছাসেবীর উপর প্রয়োগ করা হয়।

যুক্তরাজ্যের মেডিকেল রেগুলেটরি বলেছে, এটা এত দ্রুত করা হয়েছে, যা মহামারি চলাকালীন কল্পনাতীত ছিল।

চলতি মাসে যুক্তরাজ্যে ফাইজার-বায়োএনটেক ভ্যাকসিন অনুমোদন দেওয়া হয়। তবে, বিশেষজ্ঞরা আশা করছেন, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা ভ্যাকসিনটি স্বল্পমূল্য ও সহজ উৎপাদন হওয়ায় দ্রুত প্রয়োগ বৃদ্ধি পাবে। টিকাটি ফ্রিজে সংরক্ষণ করা যেতে পারে।

প্রবীণ, কেয়ার হোমের বাসিন্দা, স্বাস্থ্যকর্মীদের এই টিকা প্রথমে প্রয়োগ করা হবে। ধারাবাহিকভাবে দেশের অন্যান্য নাগরিকদেরও টিকা প্রয়োগ করা হবে বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের মেডিকেল রেগুলেটরি।

ইংল্যান্ডের জনস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন অনুমোদনের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে। এ ছাড়া ওয়েলস, স্কটল্যান্ড এবং ইংল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা এনএইচএস’র এই টিকা গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *