যুক্তরাষ্ট্রে সর্বোচ্চ করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৫ লাখ ৩৮ হাজার

আন্তর্জাতিক

ডেস্ক রিপোর্ট: বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা বেড়েই চলছে। প্রতিদিনই প্রাণঘাতী ভাইরাসটি কেড়ে নিচ্ছে অসংখ্য মানুষের প্রাণ। শনাক্তের সংখ্যাও দীর্ঘ হচ্ছে প্রতিনিয়ত। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত অদৃশ্য ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১১ কোটি ৭৭ লাখ ৪৭ হাজার ১৬৪ জন। মারা গেছেন ২৬ লাখ ১২ হাজার ৬৬ জন। সুস্থ হয়েছেন ৯ কোটি ৩৪ লাখ ২৩ হাজার ২৪০ জন।

করোনা নিয়ে নিয়মিত আপডেট দেয়া ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ড ও মিটারের থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

ওয়েবসাইটটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৫ লাখ ৩৮ হাজার ৬২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিশ্বে সর্বোচ্চ শনাক্তের সংখ্যাও এই দেশটিতে। এখন পর্যন্ত সেখানে ২ কোটি ৯৭ লাখ ৪৪ হাজার ৬৫২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। দেশটিতে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৪ লাখ ৪৯ হাজার ৬৩৪ জন।

করোনা শনাক্তের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১ কোটি ১২ লাখ ৪৪ হাজার ৬২৪ জন। এদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৫৭ হাজার ৯৬৬ জনের। মৃত্যু বিবেচনায় দেশটি বিশ্বে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। ভারতে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ৮ লাখ ৯৭ হাজার ৪৮৬ জন।

করোনাভাইরাসে শনাক্তের দিক থেকে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ব্রাজিল। ল্যাটিন আমেরিকার এই দেশটিতে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ১০ লাখ ৫৫ হাজার ৪৮০ জন। তাদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৬৬ হাজার ৬১৪ জনের। মৃত্যুর দিক থেকে দেশটি বিশ্বে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। ব্রাজিলে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৯৭ লাখ ৮২ হাজার ৩২০ জন।

করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় রাশিয়ার অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৩ লাখ ৩৩ হাজার ২৯ জন। মারা গেছেন ৮৯ হাজার ৪৭৩ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ৩৯ লাখ ২২ হাজার ২৪৬ জন।

আক্রান্ত বিবেচনায় পঞ্চম স্থানে থাকা যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছেন ৪২ লাখ ২৩ হাজার ২৩২ জন। মারা গেছেন ১ লাখ ২৪ হাজার ৫৬৬ জন। সুস্থ হয়েছেন ৩২ লাখ ৭৮ হাজার ৬২৯ জন। তালিকায় ফ্রান্স ষষ্ঠ, স্পেন সপ্তম, ইতালি অষ্টম, তুরস্ক নবম ও জার্মানি দশম স্থানে রয়েছে। আর বাংলাদেশের অবস্থান ৩৩তম।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন থেকে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২২১টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। পরে ১১ মার্চ, ২০২০ সালে করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *