যেসব অভ্যাসের ফলে হতে পারেন সঙ্গীর বিরক্তির কারণ

লাইফ স্টাইল

ডেস্ক রিপোর্ট: ঘরের কর্তৃকে খুশি রাখতে ঝামেলা সৃষ্টি করে এমন অপ্রয়োজনীয় বিষয় এড়িয়ে চলাই ভালো। টাইমস অব ইন্ডিয়াতে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে স্ত্রী বিরক্ত হতে পারে এমন বিষয়গুলো চিহ্নিত করে তা বাদ দেওয়ার উপায় সম্পর্কে জানান হল।

কাপড় এলোমেলো করে রাখা: নিজে গোছানো না হলেও মাথায় রাখতে হবে সঙ্গীনি বাড়ির কাজের লোক নয়। তাই যতটা সম্ভব নিজের জিনিসপত্র বিশেষত কাপড় চোপড় গুছিয়ে রাখতে হবে। মাঝেমধ্যে এমন ঘটনা ঘটলে তা মানানসই। তবে নিয়মিত অন্যের এলোমেলো কাপড় গোছানো বিরক্তির কারণ হতে পারে।

‘হুম’ বলা বা কেবল ‘মাথা নাড়ানো’: সঙ্গী কথা বলার সময় তার উত্তর স্বরূপ কেবল মাথা নাড়ানো বা ‘হুম’ বলা মোটেও গ্রহণযোগ্য না। এটা অনেকটা সঙ্গীকে অগ্রাহ্য করার সমান। সঙ্গী কোনো কথা বললে বা কিছু জিজ্ঞেস করলে তা শান্তভাবে শোনা এবং সে অনুযায়ী উত্তর দেওয়া সম্পর্ক ভালো হতে সাহায্য করে। আর ভুল বোঝবুঝির সমস্যা হয় কম।
নিজের কাজ শেষে সব গুছিয়ে রাখা

ব্যক্তিগত কাজ যেমন- শেইভ করা বা চুল কাটা ইত্যাদি শেষে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ঠিক মতো গুছিয়ে রাখা এবং কাজের স্থান পরিষ্কার করে রাখা উচিত। নিজের কাজ নিজে করলে সঙ্গীকে এর জন্য বার বার বিব্রত করতে হয় না।

শিশুসুলভ আচরণ: সঙ্গীর সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকা বা মন মতো আচরণ করার স্বাচ্ছন্দ্য থাকা জরুরি। তবে তা করতে গিয়ে যেন বরাবর দায়িত্ব এড়িয়ে না যাওয়া হয় সেদিকে খেয়াল রাখা জরুরি। দায়িত্ব এড়িয়ে গিয়ে সবসময় শিশুসুলভ আচরণ করা সঙ্গীর বিরক্তির কারণ হতে পারে। তাই সঙ্গীর সঙ্গে ভালো সম্পর্ক রাখার পাশাপাশি দায়িত্ব পালন করাও জরুরি। এতে পারিবারিক সম্পর্ক ভালো থাকে।

প্রাক্তন: অধিকাংশ স্ত্রীই প্রাক্তনকে সহজে গ্রহণ করে না। তাই প্রাক্তনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হতে পারে সঙ্গীর বিরক্তির কারণ। তাই পরিবারের সুসম্পর্ক বজায় রাখতে সঙ্গীর অপছন্দের কাজ এবং প্রাক্তনের সঙ্গে যোগাযোগ না রাখাই শ্রেয়।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *