রংপুরে আবাসিক হোটেল থেকে মহিলার মরদেহ উদ্ধার

সারাবাংলা

রংপুর ব্যুরো :
রংপুর মহানগরীর ষ্টেশন এলাকার বসুন্ধরা আবাসিক হোটেলের একটি কক্ষ থেকে এক মহিলার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় হোটেল ম্যানেজার মোহাম্মদ আলীসহ দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। রংপুর মেট্রোপলিটান পুলিশের কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার রাত ৮ টা ৪৫ মিনিটে স্বামী স্ত্রীর পরিচয়ে দিয়ে এক দম্পতি বসুন্ধরা আবাসিক হোটেলে উঠেন। তারা নিজেদের নাম সাইফুল ইসলাম ও তার স্ত্রীর নাম আরজিনা খাতুন (৩০) ঠিকানা দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলার ফারাক্কা বাঁধ এলাকায় বলে তথ্য দেন।
তারা স্বামী স্ত্রীর পরিচয়ে সেখানে হোটেলের ৫ নম্বর কক্ষ ভাড়ার নিয়ে রাত্রি যাপন করে। সকালে সাইফুল ইসলাম রুমের বাইরে তালা লাগিয়ে ষ্টেশন এলাকায় খরচ নেয়ার কথা বলে বের হয়ে যায়। এরপর সে আর হোটেলে ফিরে আসেনি। বেলা ১২টার পর হোটেল কর্তৃপক্ষের সন্দেহ হলে তারা রুমে কড়া নাড়ানাড়ি করলেও কোন সারা শব্দ না পেয়ে পেছনের ভেন্টিলেটার দিয়ে দেখতে পায় সেখানে অবস্থান করা নারী মৃত অবস্থায় বিছানায় পড়ে রয়েছে। হোটেল কর্তৃপক্ষ থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে হোটেলের রুমে বাইরে থেকে তালা লাগানো দেখতে পায়। পরে দরজার তালা ভেঙ্গে মহিলার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনায় সিআইডি পুলিশ ও পিবিআই পুলিশের একটি দল ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছেন।
এ ব্যাপারে কোতয়ালী থানার ওসি আব্দুর রশিদ জানান, সম্ভবত মহিলাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। ময়না তদন্তের করে প্রতিবেদন পেলে প্রকৃত রহস্য উদঘাটিত হবে। তবে সাইফুল নামে যে ব্যক্তি স্বামী পরিচয় দিয়েছেন তার ঠিকানা ও স্ত্রীর বাড়ির ঠিকানাসহ সার্বিক বিষয় তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এদিকে সিআইডি ও পিবিআই পুলিশ জানান, তারা ছায়া তদন্ত শুরু করেছেন। দুপুরে ঘটনা স্থলে আসেন মেট্রোপলিটান পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন ও অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার শহিদুল্লাহ কাওছার ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে করেছেন। এ ঘটনায় হোটেল ম্যানেজার মোহাম্মদ আলী ও হোটেলের মালিক পক্ষের লোক শাহ আলমকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *