রংপুরে ধর্ষকের কারাদণ্ড

সারাবাংলা

রংপুর ব্যুরো :
রংপুর জেলার বদরগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে মোসফেকুর রহমান (৩৪) নামে এক যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে ধর্ষণের শিকার ওই ভুক্তভোগী ছাত্রীকে এক লাখ টাকা প্রদানের আদেশ দিয়েছেন বিচারক। বুধবার দুপুরে রংপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত-২ এর বিচারক মো. রোকনুজ্জামান এ রায় প্রদান করেন। এছাড়া জোরপূর্বক গর্ভপাত ঘটানোর দায়ে অভিযুক্ত মোসফেকুর রহমানের আরো দশ বছর কারাদণ্ড দেওয়া হয়। রায় ঘোষণার সময় অভিযুক্ত মোসফেকুর আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন।
মামলার বিবরণ ও আদালত সূত্রে জানা যায়, বদরগঞ্জের জামুবাড়ী এলাকার দশম শ্রেণির (১৬) এক ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন ওই এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে মোসফেকুর রহমান (২৪)। একপর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ২০১০ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি এবং পরে একাধিকবার মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন মোসফেকুর। এতে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে সে মোসফেকুর রহমানকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। কিন্তু মোসফেকুর বিয়েতে অস্বীকৃতি জানায় এবং জোরপূর্বক মেয়েটির গর্ভপাত ঘটায়।
এঘটনায় মেয়ের বড়ভাই বাদী হয়ে ২০১০ সকালে ২২ মে মোসফেকুরকে আসামি করে বদরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। ১০ বছর মামলার বিচারকার্য চলার পর গতকাল বুধবার রায় ঘোষণা করেন বিচারক। মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত-২ এর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) জাহাঙ্গীর হোসেন তুহিন বলেন, জামিনে থাকা অবস্থায় অভিযুক্ত আসামি আদালতে হাজিরা দিয়েছিলেন। তবে রায় ঘোষণার দিনে তিনি পলাতক থাকায় তার অনুপস্থিতিতে বিচারক এ দণ্ডাদেশ প্রদান করেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *