রাজধানীতে ৬৬ মাদক কারবারি গ্রেফতার

জাতীয়

এসএম দেলোয়ার হোসেন:
রাজধানীতে মাদক সেবন ও বেচাকেনার সাথে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে ৬৬ মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের হেফাজত থেকে বিপুল সংখ্যক ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল ও কামরাঙ্গীরচরে থানা ও গোয়েন্দা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ২৩ হাজার ২শ পিস ইয়াবাসহ মো. সৈয়দ হোসেন ওরফে সাহেদ আলী ওরফে সৈয়দ আলী (৪২), কামরুল ইসলাম বাবু ওরফে বাবু (২৭), মো. শাকিল আহম্মেদ (২২) ও মোঃ আমির হোসেন (১৯) নামে ৪ ইয়াবা ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে। আজ বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) ঢাকা প্রতিদিনকে এসব তথ্য জানান ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গণমাধ্যম শাখার উপ-কমিশনার মো. ওয়ালিদ হোসেন।
তিনি জানান, গত বুধবার সকাল ৬টা থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় মাদকবিরোধী বিশেষ অভিযান চালায় সংশ্লিষ্ট এলাকার থানা ও গোয়েন্দা পুলিশের পৃথক টিম। এ সময় মাদক সেবন ও বেচাকেনার সাথে সম্পৃক্ত থাকার দায়ে ৬৬ জন মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করা হয়। তখন তাদের হেফাজত থেকে ২৯ হাজার ১১০ পিস ইয়াবা, ২৬০ গ্রাম হেরোইন, ১ কেজি ১২৫ গ্রাম গাঁজা ও ৩০ ক্যান বিয়ার উদ্ধার করা হয়। এসব ঘটনায় গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৪৩টি মামলা রুজু করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে অভিযুক্তদের আদালতে পাঠিয়েছেন তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়েছেন ডিএমপির গণমাধ্যম শাখার ডিসি মো. ওয়ালিদ হোসেন।
এদিকে কামরাঙ্গীরচর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোস্তাফিজুর রহমান ঢাকা প্রতিদিনকে জানান, গত বুধবার সকাল ৮টায় গোপন সংবাদে তার নেতৃত্বে থানা পুলিশের একটি দল কামরাঙ্গীরচরের টেকেরহাটি এলাকায় অভিযান চালায়। সেখান থেকে ১ হাজার পিস ইয়াবাসহ মো. শাকিল আহম্মেদকে গ্রেফতার করা হয়। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে একইদিন কামরাঙ্গীরচরের চাঁন মসজিদ এলাকায় অভিযান চালিয়ে মো. আমির হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়। তখন তার কাছ থেকে ১ হাজার ৪০০ পিস ইয়াবা ও মাদক বিক্রির ২ লাখ ৪৯ হাজার টাকা উদ্ধারমূলে জব্দ করা হয়। তিনি আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা পুলিশকে জানিয়েছে- তারা কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে ইয়াবা সংগ্রহ করে নানা কৌশলে ঢাকায় নিয়ে আসতো। এরপর সেগুলো কামরাঙ্গীরচরসহ ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় পাইকারি দরে বিক্রি করতো। এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে কামরাঙ্গীরচর থানায় মামলা রুজু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) গ্রেফতারকৃতদের বিজ্ঞ আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানিয়েছেন ওসি মোস্তাফিজুর রহমান।
অপর ঘটনায় ঢাকা মেট্রাপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা লালবাগ বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার মধুসূদন দাস জানান, গত বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গোপন সংবাদে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানাধীন লাভ রোডে অভিযান চালায় গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল। এসময় সন্দেহভাজন একটি মাইক্রোবাস থামিয়ে আন্তঃজেলা মাদক কারবারি চক্রের সক্রিয় ২ সদস্য মো. সৈয়দ হোসেন ওরফে সাহেদ আলী ওরফে সৈয়দ আলী ও কামরুল ইসলাম বাবু ওরফে বাবুকে গ্রেফতার করা হয়। তখন তাদের হেফাজত থেকে ২০ হাজার ৮শ পিস ইয়াবাসহ তা পরিবহনে ব্যবহৃত মাইক্রোবাসটি আটক করা হয়। এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় মামলা রুজু হয়েছে। গ্রেফারকৃত সৈয়দ হোসেনের বিরুদ্ধে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) তাদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন গোয়েন্দা কর্মকর্তা মধুসূদন দাস।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *