রাজধানীসহ সারাদেশে করোনা টিকাদান শুরু

জাতীয় সুস্থ্ থাকুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা টিকা নিরাপদ। তাই এ নিয়ে অপপ্রচার না চালানোর আহবান জানিয়ে দেশব্যাপী গণটিকাদান কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

রবিবার সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী দেশব্যাপী করোনার টিকা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। মহাখালীর গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, করোনার টিকা নিরাপদ। মন্ত্রী, এম পি সচিবসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা আজ টিকা নেবেন। এর পার্শপ্রতিক্রিয়া নেই বললেই চলে। তাই অপপ্রচার না চালাবেন না।

মন্ত্রী বলেন, টিকা না নিয়ে কেউ ফেরত যাবেন না। সময় মতো টিকা আসবে। সারা বছর চলমান থাকবে। কোভ্যাক্সের টিকাও আসবে। আমাদের কাছে ৭০ লাখ ডোজ টিকা আছে। যা ৩৫ লাখ মানুষকে দেয়া যাবে।

করোনা পরিস্থিতি উন্নতি হয়েছে এমন দাবি করে তিনি বলেন, অনেক সমালোচনা হয়েছে। অনেক দেশের তুলনায় ভালো আছি আমরা। এখন মাত্র আড়াই শতাংশ সংক্রমণ। হাসপাতালে সিট খালি আছে। আইসিইউ খালি। করোনা শক্তহাতে প্রতিরোধ করেছে সরকার।

করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রবিবার সকাল ৯টা থেকে সারাদেশের এক হাজার পাঁচটি হাসপাতালে টিকা দেয়া হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, ভ্যাকসিন প্রয়োগের জন্য রাজধানীর ৫০টি হাসপাতাল ও রাজধানীর বাইরে ৯৫৫টি হাসপাতাল প্রস্তুত করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে সারাদেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগের জন্য কাজ করবে দুই হাজার চারশ টিম। তবে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ কর্মসূচিতে অংশ নেয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছে সাত হাজার ৩৪৪টি টিম। ভ্যাকসিন প্রয়োগ কর্মসূচি চলবে দুপুর ২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত।

এদিন সরকারের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নেবেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক, স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী জনাব মো. শাহাব উদ্দিন প্রমুখ।

এছাড়াও প্রধান বিচারপতিসহ উচ্চ আদালতের বেশ কয়েকজন বিচারপতি, মন্ত্রী পরিষদ সচিবসহ বেশ কয়েকজন সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারাও টিকা নেবেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *