রাজবাড়ীতে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকট

জাতীয় সারাবাংলা

ডেস্ক রিপোর্ট : রাজবাড়ীতে হু হু করে বাড়ছে পদ্মার পানি। এতে নিম্নাঞ্চলের বসতবাড়িতে পানি প্রবেশ করছে। তলিয়ে গেছে ফসলি জমি। পানি না কমায় দুর্ভোগ বেড়েছে বন্যা দুর্গত এলাকায়।

গত ২৪ ঘণ্টায় গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া পয়েন্টে পানি পাঁচ সেন্টিমিটার বেড়ে ৭৪ সেন্টিমিটার, পাংশার সেনগ্রামে সাত সেন্টিমিটার বেড়ে ৬৫ সেন্টিমিটার ও রাজবাড়ী সদরের মহেন্দ্রপুরে ১২ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপৎসীমার ২৯ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) সকালে পানি উন্নয় বোর্ড সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সদর, পাংশা, কালুখালী ও গোয়লন্দের পদ্মা নদী তীরবর্তী নিম্নাঞ্চল ও চরাঞ্চলের অন্তত ৮ হাজার পরিবারের প্রায় ৩০ হাজার মানুষ দীর্ঘদিন পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এসব এলাকায় দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ খাবার পানি এবং গবাদিপশুর খাবারের সংকট। এছাড়া এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় যেতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। কয়েকশ হেক্টর ফসলি জমির ক্ষতি হয়েছে। ভাঙন আতঙ্ক বাড়ছে পদ্মা পাড়ের বাসিন্দাদের মধ্যে।

জেলা প্রশাসনের তথ্য অনুযায়ী, জেলায় ১৩টি ইউনিয়নের ৬৭টি গ্রামে ৭৫১৫টি পরিবার পানিবন্দি হয়ে আছেন। তালিকা অনুযায়ী তাদের চাল, ডাল, তেল, লবন, স্যালাইন, মুড়ি, মোমবাতি দেয়া হচ্ছে।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা সৈয়দ আরিফুল হক জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে দুর্গত এলাকায় ত্রাণ সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছেন। এছাড়া নতুন করে পানিবন্দিদের তালিকা করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *