রাজশাহী সড়কে ঝরলো ৩ প্রাণ

সারাবাংলা

ওমর ফারুক, রাজশাহী ব্যুরো :
রাজশাহী মহানগরীতে পৃথক পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় অটোরিক্সা চালক ও পিকাপ চালকসহ ৩ জন নিহত ও অপর ৬ জন আহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন রাজশাহী মহানগরীর শাহমখদুম থানাধীন বড়বনগ্রাম মহলদারপাড়া এলাকার মৃত নাবিরুলের ছেলে ফয়সাল (২৮), চারঘাট উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের মৃত তেসারের ছেলে জামিরুল (৬৫) ও অজ্ঞাতনামা অপর একজন। আহতদের উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।  রোববার বেলা পৌনে ১১টা থেকে সাড়ে ১১টার মধ্যে নগরীর দাসপুকুর ও শাহমখদুম থানা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।
অটোরিক্সাটি চালক নারীসহ ৩ জন যাত্রী নিয়ে রাজশাহী নগরীর ডিংগাডোবা মোড় থেকে রেলগেটের দিকে যাচ্ছিলেন। সময় গতকাল রোববার বেলা ১১টা। পথে অটোরিক্সাটি দাশপুকুর মোড়ে পৌঁছালে উল্টো পথ দিয়ে আসা বেপরোয়া গতির মাসুম পরিবহন নামের একটি বাস ওই অটোরিক্সাটিকে ধাক্কা দেয়। এতে অটোরিক্সাটি দুমড়ে-মুচড়ে যায় ও চালক এবং নারীসহ ৩ জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়। এরপর ঘটনাস্থলেই অটোরিক্সা চালকের মৃত্যু হয়। নিহতের নাম জানা যায়নি। ঘটনার পরপরই বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে রাজপাড়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অটোরিক্সাটি উদ্ধার ও ঘাটত বাসটিকে জব্দ করে থানায় নিয়ে যায়। পরে ওই এলাকার শত শত মানুষ ঘটনাস্থলে জড়ো হয়ে যায়। পরে আহতদের উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর মধ্যে দুই নারীর অবস্থা আশঙ্কাজনক।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, অটোরিক্সাটি সঠিক রাস্তা দিয়ে গেলেও বাসটি উল্টো রাস্তা দিয়ে বেপরোয়া গতিতে এসে অটোরিক্সাকে ধাক্কা দিয়ে দুমড়ে-মুচড়ে ভেঙে দেয়। চালক ও হেলপারের কঠোর শাস্তি দাবি করেন স্থানীয়রা। রামেক হাসপাতাল পুলিশ বক্সের ইনচার্জ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
এদিকে গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর শাহমখদুম থানাধীন ফুলতলা এলাকায় গরুবাহী ভুটভুটি ট্রাককে ধাক্কা দেয়। এতে গাড়ীতে থাকা জামিরল (৬৫) নামের এক বৃদ্ধ নিহত ও অপর ৩ জন আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দুর্ঘটনা কবলিত ভুটভুটিটিকে উদ্ধার করে। বাকিরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অপরদিকে, গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নগরীর শাহমখদুম থানাধীন কেস্টপাড়া এলাকায় খড় ভর্তি গাড়ীর ধাক্কায় পিকাপ চালক নিহত হয়। তিনি নগরীর বনগ্রাম মহলদারপাড়া এলাকার নাবিরুলের ছেলে। জানা যায়, তিনি পিকাপ চালিয়ে যাচ্ছিলেন। এসময় কেস্টপাড়া এলাকায় পৌঁছালে অপরদিক থেকে আসা খড় ভর্তি গাড়ি তাকে ধাক্কা দেয়। এতে পিকাপ চালক ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। পরে লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি। এ বিষয়ে নগরীর শাহমখদুম থানার ওসি সাইফুল সরকার বলেন, পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত ও অপর ৩ জন আহত হয়েছে। আইন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *