রাশিয়ার উপদ্বীপে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, নিহত ১৬

আন্তর্জাতিক লিড ১

ডেস্ক রিপোর্ট : রাশিয়ায় একটি হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়েছে। দুর্ঘটনার সময় ওই হেলিকপ্টারে ১৬ জন আরোহী ছিলেন। এদের মধ্যে অধিকাংশই ছিল পর্যটক। দেশটির কামচাতকা উপদ্বীপে ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ৯ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। তবে সাতজনের এখনও কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, লেক কুরিলে এমআই-৮ হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়েছে। প্রাথমিক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ওই হেলিকপ্টারে ১৩ যাত্রী এবং তিন ক্রু সদস্য ছিলেন।

ঘটনাস্থলে ৪০ জন উদ্ধারকর্মী এবং ডুবুরি মোতায়েন করা হয়েছে। রাজধানী মস্কো থেকে ৬ হাজার কিলোমিটারের বেশি দূরত্বে কামচাতটা শহর অবস্থিত। স্থানীয় একটি স্বাস্থ্য সূত্র জানিয়েছে, ৯ জনকে জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। উদ্ধার ও তল্লাশি অভিযান এখনও চলছে।

ওই সূত্রটি ইন্টারফ্যাক্স নিউজ এজেন্সিকে জানিয়েছে, ৯ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। এরা সবাই জীবিত আছেন। তবে বাকি সাতজনের ভাগ্যে কী ঘটেছে তা এখনও নিশ্চিত নয়। এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, দুই পাইলটসহ ৯ জন দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে গেছে।

এর আগে গত ৬ জুলাই ২৮ জন আরোহী নিয়ে রাশিয়ার একটি যাত্রীবাহী বিমান নিখোঁজ হয়। এন-২৬ নামের ওই যাত্রীবাহী বিমানটি পেট্রোপাভলোভস্ক-কামচাতস্কি থেকে কামচাতকা উপদ্বীপের পালানার দিকে যাত্রা করেছিল। পরবর্তীতে বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। বিমানটিতে ২৮ আরোহী ছিল যাদের মধ্যে ছয়জন ক্রু সদস্য। এছাড়া আরোহীদের মধ্যে এক বা দু’জন শিশুও ছিল।

তার আগে প্রায় ১৭ জন যাত্রী নিয়ে নিখোঁজ হয় রাশিয়ার অ্যান্তোভ এন-২৮ যাত্রীবাহী বিমান। উড্ডয়নের পর সাইবেরিয়ার তোমস্ক এলাকার ওপর দিয়ে যাওয়ার সময় রাডারের সঙ্গে বিমানটির যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।
এক সময় বিমান দুর্ঘটনার জন্য পরিচিত থাকলেও গত কয়েক বছরে রাশিয়া বিমান চলাচল সুরক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটিয়েছে। কিন্তু তারপরও সম্প্রতি বেশ কিছু বিমান দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে দেশটি।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *