‘রাশেদ আমাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবো’

সারাবাংলা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় বিয়ের দাবিতে তিনদিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন এক তরুণী (১৮)। গত রোববার (১৮ অক্টোবর) থেকে উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের চরপাড়া গ্রামের প্রেমিক রাশেদ মণ্ডলের (৩০) বাড়িতে অনশন করছেন ওই তরুণী।

রাশেদ ওই গ্রামের মৃত হিজাবদি মণ্ডলের ছেলে। মাস্টার্স পাস রাশেদ একটি এনজিওতে চাকরি করতেন। বর্তমানে তিনি বেকার। প্রেমিকার অনশনের খবর পেয়ে তিনি পালিয়ে গেছেন।

উপজেলার গোলকনগর গ্রামের বাসিন্দা ওই তরুণী জানান, রাশেদের বাড়ির কাছে নানা বাড়ি হওয়ার সুবাদে আসা-যাওয়ার পথে তিন বছর আগে তার সঙ্গে পরিচয় হয়। এরপর ধীরে ধীরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্কও হয়। পরে তাকে বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় রোববার তিনি রাশেদের বাড়িতে উপস্থিত হন।

তিনি বলেন, বিয়ের দাবি জানালে রাশেদের পরিবারের সদস্যরা আমাকে মারধর করেন। ফলে বিয়ের দাবিতে অনশনে বসেছি। রাশেদ আমাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবো।

রাশেদের মা বেদানা বেগম বলেন, আমার ছেলের সঙ্গে মেয়েটির সম্পর্ক ছিল। মেয়েটি বিবাহিত জানতে পেরে আমার ছেলে তাকে ছেড়ে দিয়েছে। কিন্তু মেয়েটি তাকে ছাড়ছে না। বিয়ের দাবিতে রোববার থেকে মেয়েটি আমাদের বাড়িতে অনশন করছে।

এ বিষয়ে মির্জাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মকবুল হোসেন বলেন, ঘটনাটি আমি জানতে পেরে তাদের দুই পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছি। তবে ছেলে পলাতক থাকায় সঠিক ঘটনা জানা সম্ভব হয়নি। তাকে খুঁজে পেলে তাদের মধ্যে কোনো প্রেমের সম্পর্ক আছে কি-না জানা যাবে। যদি কোনো সম্পর্ক থেকেই থাকে তাহলে তাদের বিয়ে দেয়া হবে। তবে ছেলে বিয়ে করতে রাজি না হলে তখন মেয়েটি আইনের সাহায্য নিতে পারবে।

তিনি বলেন, মেয়েটিকে বুঝিয়ে তার নিজ বাড়ি যাওয়ার কথা বললেও সে যায়নি। সে ছেলের বাড়িতে অবস্থান করছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *