রায়হান হত্যা : এসআই আকবরসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

আইন আদালত জাতীয়

ডেস্ক রিপোর্ট: সিলেটে পুলিশ ফাঁড়িতে যুবক রায়হান আহমদ হত্যার ৭ মাসের মাথায় আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে তদন্তকারী সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। বুধবার (৫ মে) বেলা ১১টায় বন্দরবাজার ফাঁড়ির তৎকালীন ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) আকবরসহ ৬ জনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়।

পিবিআই সিলেটের পুলিশ সুপার খালেদ-উজ-জামান ঢাকা পোস্টকে বলেন, আদালতে অভিযোগপত্র জমা হয়েছে। এতে পাঁচ পুলিশ সদস্য ও এক সাংবাদিককে অভিযুক্ত করা হয়েছে। দুপুর ১২টায় পিবিআই সিলেট অফিসে প্রেসব্রিফিং করে মামলার পুরো তদন্ত কার্যক্রম ও আসামিদের ব্যাপারে জানানো হবে।

এর আগে পুলিশ সুপার বলেন, আলোচিত এ মামলার আসামি পুলিশ হওয়ায় একটি নির্ভুল ও গ্রহণযোগ্য চার্জশিট তৈরি করতে কিছুটা সময় লেগেছে।

জানা গেছে, বন্দরবাজার ফাঁড়ির সাময়িক বরখাস্ত ৬ পুলিশকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। তারা হলেন- বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির তৎকালীন ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়া, টুআইসি এসআই হাসান আলী, এএসআই আশেকে এলাহী, কনস্টেবল হারুনুর রশিদ, কনস্টেবল তৌহিদ মিয়া ও কনস্টেবল টিটু চন্দ্র দাস। অভিযুক্ত ৬ জনই কারাগারে রয়েছেন। তবে ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ গায়েবকারী কথিত সাংবাদিক আব্দুল্লাহ আল নোমান পলাতক রয়েছে।

গত বছরের ১১ অক্টোবর রাতে সিলেট নগরের আখালিয়ার এলাকার বাসিন্দা রায়হান আহমদকে নগরের কাষ্টঘর সুইপার কলোনি থেকে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে ধরে এনে নির্যাতন চালানো হয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হলে পরদিন ভোরে তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখানে সকাল ৭টা ৫০ মিনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় ১২ অক্টোবর রায়হানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় পুলিশ হেফাজতে মৃত্যু আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *