রায়হান হত্যা : প্রধান আসামি এসআই আকবর যেভাবে ধরা পড়লেন

জাতীয়

অনলাইন ডেস্ক : সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) বন্দরবাজার ফাঁড়িতে নির্যাতনে রায়হান আহমদ নিহতের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত সাময়িক বরখাস্ত এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াকে সীমন্ত এলাকা থেকে ভারতীয় খাসিয়ারা আটক করে স্থানীয় বাংলাদেশিদের কাছে তুলে দেয়। পরে বিজিবির মাধ্যমে তাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে হস্তান্তর করা হয়।
খাসিয়ারা আকবরকে কোমরে দড়ি দিয়ে বেঁধে রেখেছিল। ওই সময় তাকে বলতে শোনা গেছে, তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। গ্রেফতার করা হতে পারে সেজন্য তিনি ভারতে আশ্রয় নেন। দুই মাস পরে পরিবেশ শান্ত হলে তাকে ফিরতে বলা হয়। খাসিয়াদের ধারণ করা একটি ভিডিও ক্লিপ সমকালের কাছে রয়েছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে সিলেট জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার লুৎফুর রহমান জানিয়েছেন, সকালে কানাইঘাট সীমান্ত থেকে বিজিবি এসআই আকবরকে গ্রেফতারের পর পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে।
গত ১১ অক্টোবর রাতে নগরীর আখালিয়ার নেহারিপাড়ার মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে রায়হান আহমদকে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতন ও তার মৃত্যুর পর ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন গা-ঢাকা দেন।
১৩ অক্টোবর বিকেলে তিনি এসএমপির তদন্ত কমিটির মুখোমুখি হওয়ার পরই ওইদিন রাত থেকে গায়েব হয়ে যান।গা-ঢাকা দেওয়ার আগে নগরীর মদিনা মার্কেট এলাকার কালীবাড়ি রাস্তার মুখে অবস্থিত ফুলকলি নামের একটি মিষ্টির দোকানে তাকে দেখা গেছে। এর আগে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ি ছাড়ার আগে সেখানকার সিসিটিভির হার্ডডিস্কও পরিবর্তন করেন আকবর।

মন্তব্য করুন