রিসোর্টে ভাঙচুর: সোনারগাঁও পৌরসভার কাউন্সিলর তপন গ্রেফতার

রাজনীতি

ডেস্ক রিপোর্ট: হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক নারীসহ অবরুদ্ধ হওয়ার ঘটনায় রিসোর্টে হেফাজতের চালানো সহিংসতা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের মামলায় সোনারগাঁও পৌরসভার কাউন্সিলর ফারুক আহমেদ তপনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার ভবনাথপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, হেফাজতের গত ৩ এপ্রিলের সহিংসতার ঘটনার মামলায় সোনারগাঁও পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফারুক আহমেদ তপনকে তার নিজ বাড়ির পার্শ্ববর্তী একটি ঘর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফারুক আহমেদ তপন হেফাজতে ইসলামের নাশকতার ঘটনায় মাস্টারমাইন্ড হিসেবে কাজ করেছেন। তাকে চার মামলায় গ্রেফতার দেখানো হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে রয়েল রিসোর্টে হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক এক নারীসহ অবরুদ্ধ হন (মামুনুল হক এই নারীকে তার স্ত্রী বলে দাবি করেন)। এ ঘটনায় হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা রয়েল রিসোর্টে, আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ও যুবলীগ-ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ঘরবাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ভাঙচুর এবং মহাসড়কে অগ্নিসংযোগ করেন।

এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে দুটি ও ক্ষতিগ্রস্তরা বাদী হয়ে সোনারগাঁও থানায় পাঁচটি মামলা করেন। থানায় দায়ের সাত মামলায় ৪৪৬ জনের নাম উল্লেখ করে ১৮০০ জনকে আসামি করা হয়। এ পর্যন্ত সাত মামলায় পুলিশ ৬৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জানা গেছে, কাউন্সিলর ফারুক আহমেদ তপন উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। বর্তমানে তিনি জাতীয় পার্টির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *