রিয়ালে যাচ্ছি না : মেসি

খেলাধুলা

স্পোর্টস ডেস্ক : ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ স্বপ্নকে মগজে রেখে দিতে চাননি। একের পর এক তারকা দলে টেনে রিয়াল মাদ্রিদকে নক্ষত্র আলোয় ভরিয়ে তোলা সভাপতি চেয়েছিলেন সান্তিয়াগো বার্নাব্যু ঝলমল করে উঠুক আরও দুই মহাতারকার আলোয়। সেজন্য রোনালদোর পাশে মেসিকে খেলাতে টাকার বস্তা নিয়ে মাঠে নেমেছিলেন রিয়াল সভাপতি। ২০১৯-২০২০ মৌসুমে যখন বার্সা ছাড়তে চাইলেন মেসি, জুভেন্টাসও খানিক চেষ্টা করে দেখেছে, যদি রাজি করানো যায় আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডকে। অল্প চেষ্টাতেই ইতালিয়ান ক্লাবটি বুঝে গেছে, অলীকস্বপ্ন কখনো পূরণ হওয়ার নয়। একসঙ্গে খেলার চেয়ে, একে অন্যের প্রতিদ্বন্দ্বী হতেই বরং বেশি উপভোগ করেন মেসি-রোনালদো।

‘মেসির উত্তর ছিল বেশ কঠিন। তিনি সোজা বলে দিয়েছিলেন, রিয়ালে যাচ্ছি না। আপনারা শুধু শুধুই সময় নষ্ট করছেন।’

ইতালিয়ান সাংবাদিক জিয়ানলুকা ডি মারজিও বলছেন, পেপ গার্দিওলার বিদায়ের পর ২০১৩ সালে খানিকটা নড়বড়ে অবস্থায় ছিল বার্সার পারফরম্যান্স। সুযোগে মেসির জন্য ২৫০ মিলিয়ন ইউরোর আকাশছোঁয়া দলবদলের প্রস্তাব দিয়েছিলেন পেরেজ। নিজের লেখা বই ‘গ্র্যান্ড হোটেল কালসিওমেরাকাতো’তে ডি মারজিও লিখেছেন, মেসি রাজি হলেই বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলার হওয়ার অসাধারণ সুযোগ ছিল তার।

ডি মারজিও লিখেছেন, ‘নিজেদের স্টেডিয়াম সান্তিয়াগো বার্নাব্যুকে পুনর্গঠন করার জন্য ২৫০ মিলিয়ন ইউরো রেখেছিলেন পেরেজ। সেই টাকা দিয়েই মেসিকে আনতে চেয়েছিলেন।’

শুধু ডি মারজিও একাই এমন বলেছেন, তা কিন্তু নয়। ২০১৮ সালে ফুটবল লিকসেও বলা হয়েছিল মেসিকে পাওয়ার জন্য একবার জোর চেষ্টা করেছিল রিয়াল, আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের ইচ্ছার কারণেই সেটা সম্ভব হয়নি।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *