রেনু হত্যা: আসামি মহিনের সম্পদ জব্দের নির্দেশ

আইন আদালত জাতীয়

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর বাড্ডা এলাকায় প্রাইমারি স্কুলের সামনে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে তাসলিমা বেগম রেনু হত্যার ঘটনায় হওয়া মামলায় পলাতক আসামি মহিন উদ্দিনের সম্পদ জব্দের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশিদ আজ রবিবার (৩ জানুয়ারি) শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনের জন্য আগামী ১ ফেব্রুয়ারি ধার্য করেছেন আদালত।

২০১৯ সালের ২০ জুলাই বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছেলেধরা সন্দেহে তাসলিমা বেগম রেনুকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। নিজের চার বছরের মেয়েকে ভর্তি করানোর জন্য তথ্য সংগ্রহ করতে তাসলিমা বেগম রেনু ওই স্কুলে গিয়েছিলেন।

চার বছরের মেয়ে ও মাকে নিয়ে রাজধানীর মহাখালীতে থাকতেন তিনি। দুই বছর আগে স্বামীর সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়। তার ১১ বছরের একটি ছেলে থাকলেও ছেলেটি পিতার সঙ্গে বাড্ডাতেই থাকে।

তাসলিমা বেগম রেনুকে হত্যার ঘটনায় তাঁর এক আত্মীয় নাসির উদ্দিন টিটো ৪-৫শ অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির বিরুদ্ধে বাড্ডা থানায় মামলা করেন। মামলায় পুলিশ রাজুসহ ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করে। এরপর তদন্ত শেষে ওইবছরের ১০ সেপ্টেম্বর রাজুসহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

অভিযোগপত্রভুক্ত আসামিরা হলেন মো. ইব্রাহিম ওরফে হৃদয় হোসেন মোল্লা, রিয়া বেগম ওরফে ময়না বেগম, মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ ওরফে আজাদ মণ্ডল, মোহাম্মদ কামাল হোসেন, মোহাম্মদ শাহিন, মো. বাচ্চু মিয়া, মো. বাপ্পী ওরফে শহিদুল ইসলাম, মো. মুরাদ মিয়া, মো. সোহেল রানা, আসাদুল ইসলাম, মো. বিল্লাল মোল্লা, মো. রাজু ওরফে রুম্মান হোসেন, মো. মহিউদ্দিন, মো. জাফর হোসেন পাটোয়ারী এবং ওয়াসিম ওরফে মো. অসীম আহম্মদ। এদের মধ্যে মো. মহিন উদ্দিন পলাতক।

গত ২ ডিসেম্বর চার্জশিট গ্রহণ করেন ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ। একইসঙ্গে আসামি মহিন পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *