রোহিঙ্গা দম্পতির মাদক ব্যবসা

সারাবাংলা

রাজীব রাহুল, চট্টগ্রাম ব্যুরো :
চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও আবাসিক এলাকার একটি বাসা থেকে ইয়াবা বিক্রির এক কোটি সতের লাখ এক হাজার পাঁচশ টাকা ও পাঁচ হাজার তিনশ পিস ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা দম্পতিকে আটক করেছে র‌্যাব-৭। তাদের কাছ থেকে ৬টি সিম কার্ড, ৪টি বিভিন্ন নামের জন্মসনদ, ২টি ভুয়া জাতীয় সনদ ও ১টি জাতীয়তা সনদ জব্দ করা হয়। এতেই বোঝা যায় নগরীতে কি পরিমাণ রোহিঙ্গা ছড়িয়ে পড়েছে এবং তারা বিভিন্ন অপরাধ কর্মকাণ্ডেও লিপ্ত হয়ে পড়েছে। এ বিষয়ে গত সোমবার র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. মাহমুদুল হাসান মামুন জানান, গত রোববার সকালে চান্দগাঁও আবাসিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে টাকা ও ইয়াবাসহ এক রোহিঙ্গা দম্পতিকে আটক করা হয়েছে। আটককৃত আসামী দম্পতি হচ্ছে মিয়ানমারের নাগরিক মো. শওকত ইসলাম (৩২) ও স্ত্রী মোরজিনা (২৮)। এ বিষয়ে র‌্যাব -৭ এর পরিচালক লে. কর্নেল মশিউর রহমান জুয়েল জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানাধীন চান্দগাঁও আবাসিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে একজন মায়ানমার নাগরিককে আটক করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে একই আবাসিক এলাকার ব্লক-বি এর তার ভাড়া বাসার ২য় তলায় অভিযান চালিয়ে তার ও তার স্ত্রীর কাছ থেকে পাঁচ হাজার তিনশ পিস ইয়াবা ও মাদক বিক্রির নগদ এক কোটি সতের লাখ এক হাজার পাঁচশ টাকা উদ্ধার করা হয়। তিনি আরও জানান, রোহিঙ্গা দম্পতি র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে জানালা দিয়ে টাকা ছুঁড়ে ফেলে দেয়। এসময় তল্লাশি চালিয়ে টাকাগুলো উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রোহিঙ্গা দম্পতি র‌্যাবকে জানায়,তারা মিয়ানমারের নাগরিক এবং মিয়ানমার হতে ইয়াবা সংগ্রহ করে অবৈধভাবে বাংলাদেশে ঢুকে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বাসা ভাড়া করে ইয়াবাসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকের ব্যবসা করে আসছে।এদিকে আটক রোহিঙ্গা দম্পতির বিরুদ্ধে নগরীর চান্দগাঁও থানায় নিষিদ্ধ মাদক রাখা এবং অবৈধভাবে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের অপরাধে দেশের প্রচলিত আইনে দুটি পৃথক মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান এই র‌্যাব কর্মকর্তা।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *