লালমনিরহাটে এসএ পার্সেল অ্যান্ড কুরিয়ার সার্ভিস থেকে বিপুল ভারতীয় শাড়ি জব্দ

সারাবাংলা

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাটে এসএ পার্সেল এন্ড কুরিয়ার সার্ভিস কাউন্টার থেকে ১৯৩ পিস ভারতীয় শাড়ী জব্দ করেছে সদর থানা পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে এনএসআই ও সদর থানা পুলিশ জেলা শহরের মিশনমোড়স্থ এসএ পার্সেল এন্ড কুরিয়ার সার্ভিসে যৌথ অভিযান চালিয়ে এ শাড়িগুলো জব্দ করে।
লালমনিরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহা আলম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এনএসআই ও থানা পুলিশের একটি দল দুপুরে এসএ কাউন্টারে অভিযান চালায়। পরে কাউন্টারে নাম ঠিকানা বিহীন বুুুুকিং করা ৪টি প্লাস্টিকের বস্তা থেকে অনেক দামী ১৯৩ পিস ভারতীয় জামদানী শাড়ি জব্দ করা হয়। শাড়িগুলো জব্দ তালিকায় নেওয়ার পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কাউন্টারের দুইজনকে আটক করা হয়েছে।
একটি সূত্র জানায়, গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে ভারত থেকে বুড়িমারী হয়ে প্রথমে পাটগ্রাম ও পরে আদিতমারীতে নামানে হয় শাড়ীর বস্তাগুলো। পরে আদিতমারী থেকে লালমনিরহাট এসএ পরিবহন কুরিয়ার সার্ভিসে নিয়ে আসে এক ভ্যান চালক। সেখানে বুকিং করে চলে যান ওই ভ্যান চালক।
এদিকে গোপন সংবাদের মাধ্যমে পিছু নেওয়া সরকারি গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআইয়ের সদস্যরা এই ভারতীয় শাড়ির কথা লালমনিরহাট সদর থানা পুলিশকে অবহিত করেন। পরে এনএসআই ও লালমনিরহাট সদর থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে এসব ভারতীয় জামদানী শাড়ি জব্দ করে। অভিযানে ৪টি প্লাস্টিকের বস্তা থেকে মোট ১৯৩ পিস জামদানী শাড়ী জব্দ করা হয়। শাড়ীগুলোর মূল্য দুই লাখ টাকা হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করছে পুলিশ। এই ভারতীয় শাড়ীগুলো ঢাকা মিরপুর-১০ এর শরীফ নামে এক ব্যক্তি গ্রহণ করবেন বলে এনএসআই সূত্র জানায়।
অভিযান শেষে এসএ পার্সেল এন্ড কুরিয়ার সার্ভিসের ম্যানেজার তপন চন্দ্র ও বুকিং সহকারী ইমরান হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। লালমনিরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহা আলম জানান, এসএ পার্সেল এন্ড কুরিয়ার সার্ভিসের কাউন্টার থেকে ১৯৩ পিস ভারতীয় শাড়ী জব্দ করা হয়েছে। তবে শাড়িগুলোর মালিক কে এবং কোথা থেকে এসেছে যাচাই করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *