বুধবার ১৯শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৫ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শীতের পোশাক কিনতে ভিড়

নভেম্বর ২৩, ২০২০

ওমর ফারুক, রাজশাহী ব্যুরো :
হঠাৎ রাজশাহী মহানগর ও আশেপাশের উপজেলায় শীত পড়তে শুরু করেছে। শীত শীত অনুভূত হওয়ায় গরম কাপড় কিনতে নগরীর ফুটপাতের দোকানগুলোতে ভিড় জমাচ্ছেন ক্রেতারা। ২০ নভেম্বর পর্যন্ত রাজশাহীতে গরম পড়লেও হঠাৎ করে গত দুই দিন ধরে আবহাওয়া শীতল হতে শুরু করেছে। বিকেল ৫টার পর থেকে শীত শীত অনুভূত হচ্ছে ও আবহাওয়া ঠাণ্ডা হয়ে যাচ্ছে। সেই সঙ্গে রাত থেকে সকাল পর্যন্ত রাজশাহীতে কুয়াশা পড়ছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই কুয়াশা কেটে যাচ্ছে। এ কারণে গরম কাপড় কিনতে ভিড় জমাচ্ছেন ক্রেতারা। সাধ্য অনুযায়ী ক্রেতারা শীতের পোশাক কিনছেন। এবার অন্য বছরের তুলনায় দেরিতে শীত অনুভূত হওয়ায় আগে তেমন শীতের পোশাক বিক্রি হয়নি। তবে দুই দিন ধরে শীত পড়ায় গরম কাপড় বেচাকেনা শুরু হয়েছে। তবে নভেম্বরের শুরু থেকেই ছোট শিশুদের গরম কাপড় বিক্রি হচ্ছে। ছোট বাচ্চাদের পোশাক কিনতেই ভিড় জমাচ্ছিলেন ক্রেতারা। আর এখন শীত থেকে বাঁচতে গরম পোশাক কেনা শুরু করেছেন নগরবাসী। প্রতিদিন বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে শীতের পোশাক। বিশেষ করে নগরীর প্রাণকেন্দ্র সাহেব বাজার ও আশেপাশের ফুটপাতের দোকানগুলোতে ক্রেতাদের ভিড় থাকছে চোখে পড়ার মতো। ক্রেতারা দোকানগুলো থেকে সাধ্যের মধ্যে প্রয়োজন অনুযায়ী শীতের পোশাক কিনছেন। যেসব শীতের পোশাক ক্রেতারা কিনছেন তার মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হলো মোটা জামা, শুয়েটার, মোটা গেঞ্জি, মাপলার, হুডি, জ্যাকেট, মোটা প্যান্ট, চাদর, মেয়েদের টুপি ও বাচ্চাদের বিভিন্ন ধরণের গরম কাপড় অন্যান্য জিনিস।
গতকাল সোমবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ও তার আগের দিন বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত সরজমিনে নগরীর প্রাণকেন্দ্র সাহেব বাজার ও গণকপাড়ায় গিয়ে দেখা যায়, প্রচুর পুরুষ-নারী শীতের গরম পোশাক কিনছেন। নগরের বিভিন্ন এলাকা এমনকি গ্রাম থেকে শহরে এসে গরম কাপড় কিনছেন ক্রেতারা। অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার কিছুটা দাম বেশি বলে ক্রেতাদের পক্ষ থেকে অভিযোগ রয়েছে। ক্রেতারা দোকানে দোকানে ঘুরে পছন্দের শীতের পোশাকটি কিনছেন। দাম দর করেই পছন্দের পোশাক কিনছেন তারা। শিশুর জন্য সোয়েটার কিনতে আসা রাইমা নামের এক নারী বলেন, শীত চলে আসায় আমার মেয়ের জন্য সোয়েটার কিনতে এসেছি। এছাড়া তার জন্য জুতা ও মোজা কিনবো। নিজের জন্যও গরম কাপড় কিনবো। যাতে শীতে সমস্যা না হয়। এবার করোনাকাল হওয়ার কারণে বাচ্চাদের নিয়ে আরো বেশি সতর্ক হতে হচ্ছে। শুধু বাচ্চারাই নয় করোনা পরিস্থিতি বড় ছোট ও বৃদ্ধসহ কাউকেই যেন শীত না লাগে সেজন্য আগেভাগেই গরম কাপড় কিনতে এসেছি। এই নারী ক্রেতা অভিযোগ করে আরও বলেন, এবার অন্য বছরের তুলনায় কিছুটা দাম বেশি। আর এখন ক্রেতাদের চাহিদা বাড়ায় দোকানিরা দাম কমাচ্ছেন না। যা বলছে তাই ধরে রাখছে। তারপরও পছন্দ অনুযায়ী কিনতে হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উচিত এ বিষয় নিয়ে বাজার পর্যবেক্ষণ করা। যাতে কেউ বেশি দাম নিয়ে ক্রেতাদের নাজেহাল করতে না পারে।
সুরমান নামের আরেক ব্যক্তির সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, স্ত্রী ও ছেলে মেয়ে নিয়ে শীতের পোশাক কিনতে এসেছি। যাতে শীতের সময় কষ্ট না হয়। শীত নিবারণের জন্য ছেলেমেয়ের জন্য গরম পোশাক ও স্ত্রীর জন্য গরম কাপড় কিনেছি। নিজের জন্যও কিছু কিনবো। গত বছরের তুলনায় এবার একই মানের জিনিসের একটু বেশি দাম চাওয়া হচ্ছে। নগরীর সাহেব বাজার এলাকার ফুটপাতের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা হলে তারা জানান, আগে তেমন শীতের পোশাক বিক্রি হয়নি। গত ২/৩ দিন ধরে গরম কাপড় বিক্রি হওয়া শুরু হয়েছে। দাম বেশি নেওয়া হচ্ছে এ অভিযোগ সত্য নয়। এ বছর সবকিছুর দাম বেড়েছে তাই শীতের পোশাকেও এর প্রভাব পড়েছে। পাইকারি বাজারে কম দামে পেলে কম দামেই বিক্রি করা হবে। বেশি দাম নেওয়ার কোন সুযোগ নেই। শুধু নগরীর সাহেব বাজারেই নয় নগরীর রেলগেট, শিরোইল, ভদ্রা, কোর্ট স্টেশন বাজার, লক্ষীপুরসহ বিভিন্ন এলাকার ফুটপাতে গরম পোশাক বিক্রি হচ্ছে। ফুটপাত ছাড়াও নামিদামী মার্কেটগুলোতেও শীতের পোশাক বিক্রি হওয়া শুরু হয়েছে। সেই সঙ্গে শীত নিবারণে কম্বল বিক্রির বিক্রিও বেড়েছে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
সর্বশেষ

রাষ্ট্রের কাছে শিমু হত্যার বিচার চাইলেন ওমর সানি

বিনোদন ডেস্ক : ঢাকাই চলচ্চিত্রের নায়িকা রাইমা ইসলাম শিমু হত্যার বিচার চেয়েছেন চলচ্চিত্রের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা ওমর সানি। ফেসবুকে পোস্ট

মেঘনা পেট্রোলিয়ামের পর্ষদ সভা বৃহস্পতিবার

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : শেয়ারবাজারে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে তালিকাভুক্ত কোম্পানি মেঘনা পেট্রোলিয়ামের প্রান্তিক প্রতিবেদন প্রকাশ সংক্রান্ত পরিচালনা পর্ষদ সভার তারিখ

Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31