শীতে বাহারি ফুলে রঙিন নার্সারি

সারাবাংলা

ইসমাইল খন্দকার, সিরাজদিখান থেকে:
মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলা জোড়ে নার্সারিগুলো শীতের বাহারি ফুলে নতুনভাবে সেজেছে। লাল, সাদা, হলুদ, বেগুনি, গোলাপিসহ বিভিন্ন ফুলের রঙে নার্সারি যেন আরো রঙিন হয়ে উঠেছে। ফুল প্রেমিদের এক নজরেই মন কেড়ে নেয়। শীত জেগে বসতেই ফুলে ফুলে নতুন এক রূপ ধারণ করেছে উপজেলার ৬টি নার্সারি। রাস্তার পাশে নার্সারিগুলো দেখলে চোখ জুড়িয়ে যায়। ফুলের সঙ্গে রয়েছে ফলজ ও বনজ গাছ।

এ ছাড়া বিভিন্ন সবজির চারাও রয়েছে। বাসাবাড়ি বা অফিসের সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য নার্সারিগুলোতে ফুলের গাছের কদর বেড়েছে। পছন্দ মত ফুল গাছ কিনে নিচ্ছে ক্রেতারা। আশ্বিন মাস থেকে ফাল্গুন মাস পর্যন্ত ফুল গাছ ও চৈত্র মাস থেকে আশ্বিন মাস পর্যন্ত ফলজ ও বনজ গাছ বেশি বিক্রি হয়। জানা যায়, অনেক নার্সারির রেজিস্ট্রেশন নেই এবং অনেক নার্সারিতে বিভিন্ন মিথ্যা তথ্য দিয়ে গাছ বিক্রি করে থাকে এগুলো দেখার মত কেউ নেই।

সচেতন মহল বলছে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নজরদারি বাড়ানোর দরকার যাতে করে কোনো ক্রেতা প্রতারিত না হয়। সরেজমিনে গতকাল রোববার নার্সারিগুলো ঘুরে দেখা যায়, শীতে শোভা পাচ্ছে গোলাপ , গাঁদা, ডালিয়া, সালফিয়া, ডেন্টাস, স্টার, ক্যালেন্ডুলা, জিনিয়া, কসমস, গেলেরিয়া, নয়নতারা, দুপাটি, স্নোবল, চন্দ্রমল্লিকা, ডেজিসহ নানা ধরনের শীতকালীন ফুল। এ ছাড়া বারো মাসি ফুলের মধ্যে রয়েছেÑ এনোমেটিক জুঁই, এডিনিয়াম, জবা, কামেনি, রঙ্গন, হাসনাহেনা, বেলি, কাটগোলাপ, রাধাচূড়া, জুঁই। শ্রাবন্তি নার্সারির মালিক সাইফুল ইসলাম বলেন, সিরাজদিখান ইছাপুর সড়কের পাশেই আমার নার্সারি।

১৫ বছর ধরে এ ব্যবসা করে আসছি। গোলাপ, গাঁদা, ডালিয়া, সালফিয়া, ডেন্টাস, দোপাটি ফুল এছাড়া বিদেশি পোলাপ ফুলের মধ্যে রয়েছে চায়না গোলাপ, হাজারী গোলাপ, ভ্যানেলা গোলাপ, ডাবল রিলেট, কাটাছাড়া গোলাপ ব্ল্যাকরুবি এর ফুল দুই মাসেও গাছ থেকে ঝরে পড়ে না। আরো, ইন্ডিয়ান গোলাপ, দেশি গোলাপ তো রয়েছেই। এগুলোর একেকটা একেক ধরনের সৌন্দর্য। এ ছাড়া রয়েছে ভেয়েতনাম, কেরেলা,দেশি জাতের নারিকেলের চারা।

বিদেশি ফলের মধ্যে রয়েছে রাম্বুটান, ডুরিয়ান, চেরি, পরছিমুল, এবকাঁঠাল, ম্যাঙ্গোস্টিন, স্ট্রবেরি, পেয়ারা, পিছফল, একফ্রুট, ড্রাগন, লাল কাঁঠাল, গোলাপি কাঁঠাল, আপেল, আঙ্গুর। দেশি ফলের মধ্যে রয়েছে বারোমাসি কাঁঠাল, আম, কমলা লিচু, ছবেদা, ডালিম, আতা, শরোফা, জলপাই, কমলা, মালটা, জামবুরা, লেবু। সবজির চারা হিসেবে ক্যাপসিকাম, বেগুন, মরিচ, পেঁপে, লাউ, শিম গাছ রয়েছে। তবে ভিয়েত নামের নারিকেল তিন বছরে ফলন দিবে গ্যারান্টি। তবে গাছের যত্ন করতে হবে। ১২ ঘণ্টা জমির মধ্যে ১৫ হাজার টাকায় মাসিক বেতনে চারটি শ্রমিক কাজ করে।

 

এ ছাড়া আমার স্ত্রী এবং ছেলেও আমাকে সহযোগিতা করে। এ নার্সারি দিয়েই আমাদের সংসার চলে। বছরে সব খরচ বাদ দিয়ে ১ লাখ টাকার মতো থাকে। সব সময় আমার নার্সারি খোলা থাকে। বিভিন্ন বাজারে হাটের দিন গাছ বিক্রি করে থাকি এবং নার্সারি থেকেও অনেকে নিয়ে যায়।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *