শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে শেষ বলে দিল্লিকে হারাল বেঙ্গালুরু

খেলাধুলা

খেলাধুলা ডেস্ক: শেষ বলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর প্রয়োজন ছিল ৫ রান, চার হলে ম্যাচ গড়াতো সুপার ওভারে। সেই অবস্থা থেকে স্রিকার ভারত মারলেন ছক্কা, দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে রুদ্ধশ্বাস এক জয় নিয়েই বিরাট কোহলির বেঙ্গালুরু পাড়ি জমায় আইপিএলের শেষ চারে।

গ্রুপ পর্বের শীর্ষস্থান আগেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল দিল্লি ক্যাপিটালসের। এদিকে বেঙ্গালুরুরও শেষ চার নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। দুইয়ে থাকা চেন্নাই সুপার কিংসের সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধানটা ঘোচানো ছিল প্রায় অসম্ভব, আর নিচ থেকে কলকাতা বা মুম্বাইয়ের কারোই শেষ মুহূর্তে কোহলিদের টপকে যাওয়ার সম্ভাবনা ছিল না। ফলে শেষ ম্যাচটা কার্যত পরিণত হয়েছিল ‘ডেড রাবারে’। সেই ম্যাচটাই কিনা দেখল এত রোমাঞ্চ!

বেঙ্গালুরুর সঙ্গে চেন্নাইয়ের নেট রান রেটের ব্যবধানটা ছিল প্রায় .৬০০ এর। ফলে চেন্নাইকে টপকে কোয়ালিফায়ারে সুবিধাজনক অবস্থানে থাকার সুযোগ পেতে হলে দলটিকে জিততে হতো প্রায় ১৬০ এর কাছাকাছি রানে। তবে দিল্লি শুরুতে ব্যাট করে সে সম্ভাবনাও শেষ করে দেয় কোহলিদের।

শুরুতে ব্যাট করে এভিন লুইসের অর্ধশতক আর পৃথ্বী শ’র ৪৮ এ ভর করে বেঙ্গালুরু সামনে দিল্লি ছুঁড়ে দেয় ১৬৪ রানের চ্যালেঞ্জ। জবাবে শুরুতেই দেবদূত পাড়িক্কল ও বিরাট কোহলিকে হারায় বেঙ্গালুরু। এরপর ইনিংস মেরামতের চেষ্টায় ২৬ বলে ২৬ রান করে বিদায় নেন এবি ডি ভিলিয়ার্সও।

এরপরই ম্যাক্সওয়েলকে নিয়ে শুরু স্রিকারের প্রতিরোধের। ১১১ রানের জুটি গড়ে দলকে পৌঁছে দেন জয়ের বন্দরে। যার শেষটায় ছিল শেষ বলে ছক্কার সেই অবিস্মরণীয় কীর্তিটি।

এই জয়ের পরও কোহলির বেঙ্গালুরু রয়ে গেছে তালিকার তিনেই। ফলে চারে থাকা কলকাতা নাইট রাইডার্সের মুখোমুখি হবে দলটি। আর কোয়ালিফায়ারে খেলবে শীর্ষ দুই দল দিল্লি ক্যাপিটালস ও চেন্নাই সুপার কিংস।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *