শ্রীপুরে কিশোরী গণধর্ষণ : গ্রেফতার ২

সারাবাংলা

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:
গাজীপুরে এক পোশাক কর্মীকে (১৬) দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগে দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এঘটনায় জড়িত আরও দুজন পলাতক রয়েছেন। তাদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। শুক্রবার সকালে চারজনকে আসামি করে মামলা করেছেন কিশোরী। মামলার আসামিরা হচ্ছে উপজেলার ধামলই গ্রামের মজনু মিয়ার ছেলে সুজন (২৪), মুলাইদ গ্রামের মৃত. আমির হোসেনের ছেলে মুন্না (২২), মাওনা উত্তরপাড়া গ্রামের সজল মাস্টারের বাড়ির কেয়ারটেকার দুলু (৪৫) ও মো. বাবুল (৪৮)। এদের মধ্যে সুজন ও বাবুলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে শ্রীপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম সারোয়ার বলেন, উপজেলার মাওনা উত্তরপাড়া গ্রামের একটি বাড়ির কেয়ারটেকার হিসেবে কাজ করেন দুলু ও বাবুল। ওই বাড়ির এক ভাড়াটিয়ার বান্ধবী ভালুকা থেকে গত বৃহস্পতিবার বেড়াতে আসেন। রাত ২টার দিকে দুলু ও বাবুল ওই কিশোরীকে তুলে নিয়ে পাশের একটি কক্ষে আটকে রাখেন। সেখানে সুজন ও মুন্না কিশোরীকে হত্যার হুমকি দিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। ধর্ষণ শেষে কিশোরীর বান্ধবীর ঘর থেকে প্রায় দেড় লাখ টাকার স্বর্ণালঙ্কার ও মোবাইল ফোন নিয়ে যান অভিযুক্তরা। শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খোন্দকার ইমাম হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য কিশোরীকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত অপর ব্যক্তিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *