শ্রীলেখার বদ অভ্যাস

বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক : ব্যক্তিগত জীবনে সিঙ্গেল মাদার হলেও খুব স্বাধীনভাবে জীবন-যাপন করতে পছন্দ করেন তিনি। বছরজুড়েই নানা বিষয় নিয়ে আলোচনায় থাকেন তিনি। খোলামেলা পোশাক নিয়ে যেমন কারো ধার ধারেন না, তেমনি ঠোঁটকাটা স্বভাবের মানুষ হিসেবেও দারুণ খ্যাতি রয়েছে টলিউড অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রর।

এবার স্পষ্টভাবে শ্রীলেখা জানালেন, ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। কিন্তু তিনি নিজেও ধূমপান করেন। অর্থাৎ এই বদ অভ্যাসের দাস তিনি।

ধূমপানের ক্ষতিকর দিকের কথা কারো অজানা নয়। এতে স্বাস্থ্যের ক্ষতি হয়। কিন্তু কেউ কেউ বলেন স্বাস্থ্যের পাশাপাশি ধূমপান চরিত্রেরও ক্ষতি করে! আর এই প্রশ্ন শ্রীলেখাকে করেছিলেন ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যম। জবাবে এ অভিনেত্রী বলেন—সিগারেট খাওয়া খারাপ অভ্যাস। কোনো দিন প্রচার করব না। কিন্তু বদ অভ্যাসের দাস তো আমরা মানুষরাই। আর এখানে গিয়েই সমস্যা। তামাকজাত শরীর নষ্ট হয়, চরিত্র না। এটাই সম্ভবত মানুষ গুলিয়ে ফেলেন। আর এতে বেশি টার্গেট করা হয় নারীদের।

যারা টার্গেট করেন তারা কী নারী না পুরুষ? একটি উদাহরণ টেনে শ্রীলেখা বলেন—কেবল পুরুষরা নন, একজন নারীর চরিত্রহননে কোনো লিঙ্গই কম যায় না। সোশ্যাল মিডিয়ায় একজন নারী রয়েছেন যিনি আমাকে সব প্ল্যাটফর্মেই অনুসরণ করেন। আমার সমস্ত ছবি দেখেন এবং কুৎসিত মন্তব্য করেন। ব্লক করলে অন্য মাধ্যমে আমাকে ফলো করেন।

শ্রীলেখা ধূমপানের মতো বদ অভ্যাসের দাস। বিষয়টি উল্লেখ করে শ্রীলেখা বলেন—এটা সবাই জানেন যে আমি এই বদ অভ্যাসের (সিগারেট) দাস। আমি সিগারেট খাই। কিন্তু কোনো দিন সিগারেট খাওয়ার ছবি পোস্ট করব না। কারণ এই প্রচারটা করতে চাই না। কিন্তু ধরে নেওয়া যাক, কোনো দিন অন্য কোনো সূত্রে যদি আমার সিগারেট খাওয়ার ছবি সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মে প্রকাশ পেয়ে যায়, তবে আর রক্ষা নেই! আমার চরিত্র ধুলোয় মিশিয়ে দিতে বাকি রাখবেন না কেউ। এটা তো হওয়ার কথা নয়!

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *