সবুজবাগে গণধর্ষণ, সহায়তাকারী নারীসহ গ্রেপ্তার ২

রাজধানী

ডেস্ক রিপোর্ট: রাজধানীর সবুজবাগ এলাকায় নারীকে গণধর্ষণের অভিযোগে এক নারীসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে সবুজবাগ থানা পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) কর্মচারী সনজিব কুমার দাস। আরেকজন তার সহযোগী আনিকা। সোমবার দিবাগত রাতে মাদারটেক এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সবুজবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুরাদুল ইসলাম সোমবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, কেরানীগঞ্জের বাসিন্দা এক নারীকে ব্যাংকে চাকরি দেয়ার নাম করে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ মাদারটেকের একটি বাসায় ডেকে আনে সনজিব দাস। তার সঙ্গে রাসেল, জামাল, আজিজুর রহমান ও আনিকা নামে এক নারী ওই বাসায় ছিলেন। ওই বাসাতেই ওই নারীকে সনজিবসহ বাকিরা পালাক্রমে ধর্ষণ করেন।

এ ঘটনায় ১ মার্চ সবুজবাগ থানায় সনজিবকে ১ নম্বর আসামি করে পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন ধর্ষণের শিকার ওই নারী। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আনিকা ও সনজিবকে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ জানিয়েছে, বাকিদের গ্রেপ্তারেও অভিযান অব্যাহত আছে। সনজিবের বিরুদ্ধে খিলগাঁও থানায় আরও একটি ধর্ষণ মামলা রয়েছে বলেও জানা গেছে।

এদিকে, ধর্ষণের শিকার ওই নারী মামলার এজাহারে উল্লেখ করেন, পাঁচ বছর আগে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয় তার। এরপর একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করে জীবিকা নির্বাহ করতেন তিনি। গত ১০ ফেব্রুয়ারি পূর্বপরিচিত সনজিবের সঙ্গে সাক্ষাৎ হলে কুশল বিনিময়ের সময় তিনি তার সন্ধানে ব্যাংকে ভালো চাকরি থাকার কথা জানান। পরে চাকরি দেয়ার কথা বলে মাদারটেকের ওই বাসায় ডেকে নেন। এক পর্যায়ে সেখানে তাকে গণধর্ষণ করা হয়।

সেখানে উপস্থিত নারী আনিকা এ কাজে তাদের সহায়তা করেন। এ ঘটনা জানাজানি হলে সনজিব তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেন বলেও উল্লেখ করা হয় এজাহারে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *