সরাইলে নদী ভাঙনে শতাধিক বসতবাড়ি বিলীন

সারাবাংলা

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি:
ব্রাহ্মণবিড়িয়া সরাইল হাওর অঞ্চল অরুয়াইল ইউনিয়নের ধামাউড়া গ্রামের কান্তা খালের সঙ্গে যুক্ত মেঘনা-তিতাস নদীর তীব্র স্রোতে কান্তা খালের কুঁেড়র ভাঙনে তীরবর্তী মানুষের শত শত ঘরবাড়ি বিলীন হয়ে গেছে। এর ফলে শতাধিক বেশি পরিবার অসহায় সম্বলহীন হয়ে পড়েছে। জানা যায়, ধামাউড়া গ্রামে আড়াইশ পরিবার বসবাস করছেন। এ গ্রামটিই এখন নদী ভাঙনের কারণে সবচেয়ে বেশি হুমকির মুখে পড়েছে। নদী ভাঙনে পুরো গ্রামের মানুষের মধ্যে আতংক সৃষ্টি করেছে। তারা অভিযোগ করেছেন,বছরের পর বছর নদীর ভাঙন অন্য যে কোনো সময়ের তুলনায় ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। কেউ আমাদের খোঁজ-খবর নেই না। ধামাউড়া গ্রামের সায়েদ মিয়া, ইসমাইল মিয়া, ফায়জুল ইসলাম ও অহিদ মিয়া জানান, দিনের পর দিন নদীর বুকে হারিয়ে যাচ্ছে ধামাউড়া গ্রাম আর আমাদের বসত ভিটা। প্রতি বছর নদী ভাঙনের কবলে পরে শত শত ঘরবাড়ি বিলিন হয়ে যাচ্ছে। কয়েক দিন আগেও ৩/৪টি বসত ঘর নদীতে বিলীন হয়ে যায়। অরুয়াইল ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মোশাররফ হোসেন জানান, দীর্ঘদিন ধরেই ধামাউড়া গ্রামের নদী ভাঙন শুরু হয়েছে। এ গ্রামকে নদী ভাঙন থেকে রক্ষা করতে হলে স্থানীয় একটি বেঁরি বাঁধ নির্মাণ করা প্রয়োজন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *