সরাইলে ব্যক্তি উদ্যোগে পুল নির্মাণ

সারাবাংলা

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার শাহজাদাপুর ইউনিয়নে স্বাধীনতার ৫০ বছর পর পুলের মুখ দেখলেন এলাকাবাসী। সরকারিভাবে খোয়ালাপাড় নদী উপর পুল নির্মাণের জন্য ৩ গ্রামের হাজার হাজার মানুষ যুগ যুগ ধরে দাবি জানিয়ে আসলেও স্বাধীনতার ৫০ বছরেও এলাকাবাসীর দাবি পূরণ হয়নি। জনপ্রতিনিধিদের আশ্বাসেই পার হয়েছে দীর্ঘ ৫০টি বছর। অবশেষে ব্যক্তি উদ্যোগে পুল নির্মাণে এগিয়ে এসেছেন উপজেলার শাহাজাদাপুর গ্রামের মধু মিয়া খাদেমের পুত্র প্রবাসী ইমরান হোসেন খসরু খাদেম। নিজ অর্থায়নে পুল নির্মাণ করে দিয়েছেন খোয়ালাপাড় নদীর উপর। প্রবাসী খসরু খাদেম এর আর্থিক অনুদানে পুল নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করেছেন শাহজাদাপুর গ্রামবাসী। পুলটি নির্মিত হওয়ায় শাহজাদাপুর গ্রামবাসীসহ আশপাশের তিন গ্রামের ৩০ হাজার মানুষের যাতায়াতের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। বছরের পর বছর ধরে এলাকার হাজার হাজার মানুষ পুলের অভাবে কষ্ট করে যেখানে নৌকাযোগে পারাপার হতেন সেখানে অনায়াসে এখন এই পুলের উপর দিয়ে হেঁটে পারাপার হতে পারছেন। নিজ উদ্যোগে এলাকাবাসীর দুঃখ কষ্টের কথা চিন্তা করে সূদূর প্রবাস থেকে খসরু খাদেম নিঃস্বার্থভাবে নিজের কষ্টার্জিত অর্থ দিয়ে এই ব্রিজটি নির্মাণ করে দেওয়ায় খুশি এলাকার ৩০ হাজার মানুষ।
অবহেলিত এলাকাবাসীরা বলেন, জনসেবার মহৎ ইচ্ছা থাকলে অসাধ্যকে যে সাধন করা যায় তার এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন প্রবাসী খসরু খাদেম। শুধু ব্রীজের অর্থায়ন নয় ইতিপূর্বে শাহজাদাপুর গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগেও সাধ্যমত অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করেছিলেন তিনি। এ ছাড়া গ্রামের মানুষের যে কোনো প্রয়োজনে তিনি আর্থিক সাহায্য দিয়ে আসছেন সুদূর প্রবাস থেকে।
সাবেক চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম খাদেম বলেন, আমি চেয়ারম্যান হয়ে যে কাজটি করতে পারিনি তা খসরু খাদেম এই কাজটি করে গ্রামকে দেখিয়ে দিয়েছেন। এতে গ্রামের মানুষ অনেক খুশি। এখন আর নৌকা লাগবে না। সরাসরি যানবাহন দিয়ে বাডেিত যেতে পারবে।
সেই সাথে এই পুলটি চলাচলের স্থায়ী ব্যবস্থা হিসেবে পাকা নির্মাণের জন্য সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের প্রতি ফের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *