সারাদেশে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

সারাবাংলা

ডেস্ক রিপোর্ট:
ভারতীয় উপমহাদেশের অন্যতম প্রাচীন রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। বাংলাদেশের সব জেলা ও উপজেলাগুলোতে নানা কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এ দেশের বৃহত্তম ও প্রাচীন রাজনৈতিক সংগঠন। ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন, কে এম দাস লেনের ঐতিহাসিক রোজ গার্ডেনে মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীকে সভাপতি, শামসুল হককে সাধারণ সম্পাদক এবং শেখ মুজিবুর রহমানকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক করে গঠিত হয় একটি নতুন রাজনৈতিক দল, পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী (মুসলিম) লীগ।
১৯৪৯ সালে যে শিশুর জন্ম ২০২১ এ এসে তার বার্ধক্যে উপনীত হওয়ার কথা, কিন্তু সে যেন দিন দিন আরও টগবগে তরুণ হচ্ছে, সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আরও শাণিত হচ্ছে, কালের সীমারেখা পেরিয়ে যে নিজেই নিজেকে ছাপিয়ে যাচ্ছে সৃষ্টিশীল, নান্দনিক কাজের মাধ্যমে। ঢাকা প্রতিদিন-এর প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ বিস্তারিত তুলে ধরা হলো
আশুলিয়া (ঢাকা) প্রতিনিধি জানান, ঢাকার আশুলিয়ায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সংগ্রাম, অর্জন ও গৌরবের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। বুধবার সকালে আশুলিয়া থানা আওয়ামী লীগের আয়োজনে আশুলিয়া প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ এবং এলাহী কমিনিটি সেন্টারে কেক ও দোয়া মাহফিলের মধ্যে দিয়ে এ দিনটি পালন করেন ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান। এসময় আশুলিয়া থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ন আহ্বায়ক সারা বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি ভোটে নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান স্বনির্ভর ধামসোনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের হাত দিয়ে মন্ত্রীকে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক খাইয়ে দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেনÑ আশুলিয়া থানা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ফারুক হাসান তুহিন, যুগ্ম আহ্বায়ক ও স্বর্নিভর ধামসোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম।
এসময় নেতাকর্মীরা বলেন, আওয়ামী লীগের অর্জন পাকিস্তান আমলের গণতান্ত্রিক মানুষের অর্জন, এই দলের অর্জন বাংলাদেশের অর্জন। জাতির জন্য যখন যা প্রয়োজন মনে করেছে, সেটি বাস্তবায়ন করেছে এ দলটি। ভাষা আন্দোলন থেকে মুক্তিযুদ্ধ, সব আন্দোলন সংগ্রামে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে বাংলাদেশ গঠনে সর্বোচ্চ ভূমিকা পালন করেছে আওয়ামী লীগ। স্বাধীনতার পর থেকে দেশ বিরোধীদের ষড়যন্ত্র স্বত্ত্বেও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ধ্বংস্তূপ থেকে উঠে এসে স্বৈরশাসনের অবসান ঘটিয়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেনÑ সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মেহেদী মাসুদ মঞ্জু, সাভার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শাহাদাত হোসেন খান, ধামসোনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মতিন ও সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক মুন্সী, আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহ্বায়ক মো. কবির হোসেন সরকার, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মঈনুল ইসলাম ভূঁইয়া, আশুলিয়া থানা যুবলীগের সম্মানিত সদস্য ইলিয়াস ভূঁইয়া, সালাউদ্দিন সরকার ও ধামসোনা ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হারুনুর রশিদ, ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার মো. শফি উদ্দিন, আশুলিয়া থানা যুবলীগের সাবেক সদস্য ও ঠিকাদার শহিদুল ইসলাম মিয়া ও ইয়ারপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মো. নুরুল আমিন সরকার, পাথালিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুন পরামানিক, ধামসোনা ইউনিয়ন যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইসমাইল বকুল ভূঁইয়া, আশুলিয়া থানা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রত্যাশী আরিফুল ইসলাম আরিফসহ সব অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি জানান, ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় দোয়া মাহ্ফিলের মধ্য দিয়ে আওয়ামীলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা পালন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় কাশিমপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রধান কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন এর আয়োজন করেন। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেণ বাগমারা জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আমিনুল ইসলাম। এর আগে জাতির জনক বঙ্গ বন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী নিয়ে আলোচনা করেন সাবেক এমপি ও সাবেক গণপরিষদ সদস্য আবু মোহাম্মদ সুবিদ আলী টিপু। বক্তব্য রাখেন ঢাকা জেলা আওয়মীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পনিরুজ্জামান তরুণ। পরে দুপুরে দলের পক্ষ থেকে নেতাকর্মীরা উপজেলা পরিষদে বঙ্গ বন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এসময় উপস্থিত ছিলেন নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক মিজানুর রহমান ভূইয়া কিসমত, যুগ্ম আহবায়ক ড. সাফিল উদ্দিন মিয়া, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. জালাল উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্যবৃন্দ ও ছাত্রলীগ, যুবলীগ,কৃষকলীগ,স্বেচ্ছাসেবকলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। অন্য দিকে ঢাকার দোহারেও গতকাল বুধবার বাদ আছর দোয়া ও মোনাজাতের মধ্য দিয়ে আওয়ামীলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। উপস্থিত ছিলেন দোহার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আলমগীর হোসেনসহ আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
জয়পুরহাট প্রতিনিধি জানান, জয়পুরহাটে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।  বুধবার সকালে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন শেষে স্থানীয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়। এসময় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আরিফুর রহমান রকেটের সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভায় বক্তব্য দেনÑ জয়পুরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সামছুল আলম দুদু, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এস.এম সোলায়মান আলী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন মন্ডল, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট মোমেন আহমেদ চৌধুরী (জিপি) সহ অঙ্গ সংগঠনের নেতারা।
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি জানান, সাতক্ষীরায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে গ্রীন এনভারমেন্ট মুভমেন্ট সাতক্ষীরা জেলা শাখার উদ্যোগে ভিন্ন ধরনের কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিভিন্ন সংগঠন ও স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানের প্রত্যেককে ৭২টি করে ঔষধী, ফলদ, ও বনজ গাছের চারা বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়েছে।  বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের আব্দুল মোতালেব মিলনায়তনে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম। গ্রীন এনভারমেন্ট মুভমেন্ট এর সাতক্ষীরা জেলা শাখার সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক এজাজ আহমেদ স্বপনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেনÑ সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি মমতাজ আহমেদ বাপী, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সুজন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহানা মহিদ, যুগ্ম সম্পাদক ফিরোজ কামাল শুভ্র, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু, সিনিয়র সাংবাদিক কল্যান ব্যানার্জি, সাতক্ষীরা আহ্ছানিয়া মিশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল, জেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক হারুন আর রশিদ, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিল, নির্বাহী সদস্য সেলিম রেজা মুকুল, সদস্য মোহাম্মদ রফিক, খন্দকার আনিসুর রহমান, ফয়জুল হক বাবু, আছাদুজ্জামান মধু, সাংবাদিক মশিউর রহমান ফিরোজ, শেখ কামরুল ইসলাম প্রমুখ। প্রথমদিনে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব, সাতক্ষীরা আহছানিয়া মিশন, প্রথম আলো বন্ধু সভা, দৈনিক দৃষ্টিপাত, দৈনিক পত্রদুত, সম্মিলিত সাংবাদিক অ্যাসোসিয়েশন সাতক্ষীরার মধ্যে গাছের চারা বিতরণ করা হয়। এ ছাড়া পর্যায়ক্রমে জেলার বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৭ হাজার ২০০ গাছের চারা বিতরণ করা হবে।
নওগাঁ প্রতিনিধি জানান, নওগাঁয় আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এসময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ জাতীয় নেতাদের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। পরে সব শহীদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন ও দোয়া মাহফিল এবং সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী রেজাউল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক শাকিল আহম্মেদ বাদল, দফতর সম্পাদক আমিনুল করিম তরফদার সাবু, উপ-দফতর সম্পাদক আব্দুল লফিত বকুল, নওগাঁ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিক, ভাইস চেয়ারম্যান ইলিয়াস তুহিন রেজা, জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শফিকুর রহমান মামুন প্রমুখ।
বরিশাল ব্যুরো প্রধান জানান, বরিশালে রাতে আতসবাজী দলীয় পতাকা উত্তোলনসহ স্বাধীনতার স্থপতি জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর মূরালে পূস্পর্ঘ অর্পণের মধ্যে উৎসবমূখর পরিবেশে ও যথাযোগ্য মর্যদায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করেছে বরিশাল সিটি মেয়র, ও বরিশাল জেলা এবং মহানগর আওয়ামী লীগ সহ দলীয় অঙ্গ সংগঠন। গতকাল বুধবার সকাল নয়টায় নগরীর শহীদ সোহেল চত্বর জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর মুরালে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে প্রথমে পুস্প মাল্য অর্পন করে সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। এরপরই বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড, একে এম জাহাঙ্গীর হোসাইন, ও সাধারণ সম্পাদক সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ সহ দলীয় নেতারা শ্রদ্ধা জানান। প্রর্যায়েক্রমে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক (সাবেক) সংসদ অ্যাড. তালুকদার মোঃ ইউনুস সহ জেলার নেতৃবৃন্দদের নিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এছাড়া জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মইদুল ইসলাম তার সদস্যদের নিয়ে শ্রদ্ধা জানান। পরবর্তীতে নগরীর ত্রিশটি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, মহিলা লীগ,শ্রমিক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নিজ নিজ দলীয় ভাবে তারা শ্রদ্ধা জানান। বিকালে দলীয় কার্যলয়ে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা। এর পূর্বে সকালে দলীয় কার্যলয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এছাড়া প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর প্রথম প্রহরে দলীয় কার্যলয়ে রাত ১২,১ মিনিটে কেক কেটে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর উদ্ধোধন করেন সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ ও জেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক এ্যাড, তালুকদার মোঃ ইউনুস সহ দলীয় নেতৃবৃন্দ।
রংপুর ব্যুরো প্রধান জানান, ইতিহাস-ঐতিহ্য ও গৌরবের এবং মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনাকারী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী নানা কর্মসুচীর মাধ্যমে পালন করেছে রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগ। গতকাল বুধবার বেতপট্রিস্থ দলীয় কার্যালয়ে সকাল ৬ টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। দুপুর ১২টায় বঙ্গবন্ধু চত্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ম্যুরালে শ্রদ্ধাঞ্জলী জ্ঞাপন করা হয়। পরে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিউর রহমান সফির সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগ উপদেষ্টা একে.এম মোজাম্মেল হক .রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডল, সহ-সভাপতি রেজাউল ইসলাম মিলন, এডভোকেট দিলশাদ মুকুল, হারুন ইসলাম,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নওশাদ রশীদ, নিধুরাম অধিকারী, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক খায়রুল কবির চান, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, ধর্ম সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন লাবলু, শ্রম সম্পাদক হাসানুজ্জামান নান্নু, কার্যকরি সদস্য তৌহিদুল ইসলাম, ২২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি রায়হান আহমেদ মানিক, ২৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল আলম, সাধারণ সম্পাদক নাজমুল করিম ডলার, ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, সাবেক ছাত্রনেতা গোলাম সারোয়ার মির্জাসহআওয়ামী লীগ ও অংঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধি জানান, মাদারীপুর জেলার কালকিনিতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে  বুধবার সকালে কালকিনি উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সব সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে দলীয় কার্যালয় জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পন, র‌্যালি, আলোচনা সভা, দোয়া-মাহফিল ও কেক কাটা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কালকিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আওলাদ হোসেন মাষ্টারের সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক লোকমান সরদারের সঞ্চালনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেনÑ স্থানীয় এমপি ড. আবদুস সোবহান গোলাপ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি তাহমিনা সিদ্দিকী, উপজেলা চেয়ারম্যান মীর গোলাম ফারুক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুজ্জামান শাহিন, পৌরসভার মেয়র এসএম হানিফ, সাবেক পৌর প্রশাসক আবুল কালাম আজাদ। এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেনÑ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল বাশার, উপজেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক মো. বেল্লাল হোসেন, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন সম্পাদক শাহাদাত সরদার, উপজেলা তাঁতী লীগের সম্পাদক রেজাউল ফরাজী, পৌর আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন রিপন ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বদিউজ্জামান বাকামিন প্রমুখ।
কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি জানান, কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে স্বাধীনতার নেতৃত্বদানকারী দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম তিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকালে কটিয়াদী উপজেলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এর আয়োজন করা হয়। আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে উপস্থিত ছিলেনÑ উপজেলা আওয়ামী লীগের মুখপাত্র সাবেক ভিপি সিদ্দিকুর রহমান ভূঞা, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক ভিপি দুলাল বর্মন, নারী ভাইস চেয়ারম্যান রোকসানা আক্তার প্রমুখ।
লালপুর (নাটোর) প্রতিনিধি জানান, নাটোর জেলার লালপুরে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীপালন করেছে দলীয় নেতাকর্মীরা। এ উপলক্ষ্যে  বুধবার সকালে লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের অস্থায়ী কার্যালয়ে দলীয় নেতাকর্মীরা জাতীয় সংগীত পরিবশেন করে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন। পরে তারা লালপুর মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে ভবনে স্থাপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন। পরে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে ভবনের অডিটরিয়ামে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। লালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আফতাব হোসেন ঝুলফুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইসাহাক আলী সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য দেনÑ নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য উপাধ্যক্ষ বাবুল আকতার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারনম্যান মনোয়ার হোসেন মনি। এসময় নারী ভাইস চেয়ারম্যান পরভীন আক্তার বানুসহ আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) প্রতিনিধি জানান, বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে  বুধবার সকালে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগী সংগঠন দলীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে। সকাল ৯টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিত্বে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য দেনÑ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএমদাদুল হক, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হারুন-অর রশীদ, আওয়ামী লীগ নেতা শহিদুজ্জামান সাবু, ইখতিয়ার হোসেন দিলাল, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ভাইস চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক মোজাম, যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট তাজিনুর রহমান পলাশ প্রমুখ। আলোচনা শেষে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি জানান, পটুয়াখালীর বাউফলে আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়েছে।  বুধবার উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় জনতা ভবনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় বাউফল উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় জনতা ভবনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাউফল উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোসারেফ হোসেন খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জাতীয় সংসদের সরকারি প্রতিষ্ঠান কমিটির সভাপতি সাবেক চীফ হুইপ আ.স.ম ফিরোজ এমপি। আলোচনা সভাটি এক পর্যায়ে জনসভায় পরিণত হয়ে যায়। এসময় তিনি ২১ জুন অনুষ্ঠিত বাউফলের ৯টি ইউপি নির্বাচনে ৮টিতে নৌকা বিজয়ী হওয়ায় তাদের অভিনন্দন জানান। একই সঙ্গে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দলের মধ্যে সৃষ্ট মতবিরোধ দ্রুত ভুলে সম্মিলিতভাবে মানুষের জন্য কাজ করার নির্দেশনা দেন। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেনÑ বাউফল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মোতালেব হাওলাদার, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সামসুল আলম মিয়া, বাউফল পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ইব্রাহিম ফারুক প্রমুখ। আলোচন শেষে আ.স.ম ফিরোজের নেতৃত্বে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানরা উপজেলা চত্ত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
আ.স.ম ফিরোজ বলেন, আওয়ামী লীগ আছে বলেই বাংলাদেশের মানুষ সুখে-শান্তিতে বসবাস করতে পারছেন। আওয়ামী লীগ আছে বলেই বাংলাদেশ আজ বিশ্ব মানচিত্রে অন্যন্য শিখরে অবস্থান করছে। আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠা করার উদ্দেশ্যেই ছিল দেশের গরীব-দুঃখী মানুষের জীবন-মানের উন্নয়ন। বঙ্গববন্ধু সেই স্বপ্নই দেখেছিলেন। বরেণ্য রাজনীতিবিদ আবদুল হামিদ খান ভাসানী, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, শামসুল হক এবং ইয়ার মোহম্মদ খানসহ অন্য রাজনীতিবিদরা ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ নামে এই দলটি প্রতিষ্ঠা করেন। এরপর বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে আওয়ামী লীগ ছড়িয়ে পড়ে গ্রাম-গ্রামান্তরে। বাংলার মানুষের আস্থার জায়গা হয় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে। ১৯৫৪ সালে প্রাদেশিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন যুক্তফ্রন্টকে নৌকা মার্কায় ভোট দেন বাংলার মানুষ। আওয়ামী লীগকে গণমানুষের দল হিসেবে পরিণত করতে বঙ্গবন্ধু বহুবার জেল খেটেছেন। ১৯৬৬ সালে ছয় দফায় আওয়ামী লীগ সমর্থন দেয়। ১৯৭০ সালে জাতীয় নির্বাচনে একক সংখ্যাগড়িষ্ঠতা অর্জন করে আওয়ামী লীগ। এরপর বঙ্গবন্ধু আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে স্বাধীনতা ঘোষণা করেন এবং বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে বাংলার মানুষ মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়ে দেশ স্বাধীন করেন। স্বাধীনতার পর ১৫ আগস্টের ঘটনাসহ নানাবিধ চক্রান্তের জাল ভেদ করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ এখন দেশ পরিচালনা করছে। শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে নিরলশভাবে কাজ করে সেই স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিয়েছেন। এ কারণেই আজ মানুষ নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়ে সুখে-শান্তিতে বসবাস করছেন। শেখ হাসিনার কারণেই বাংলাদেশ আজ বিশ্বের কাছে এক অনন্য দৃষ্টান্ত।
গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি জানান, ময়মনসিংহের গৌরীপুর পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে নানা আয়োজনে স্বাধীনতার নেতৃত্বদানকারী ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে।  বুধবার সকালে কেক কাটা, পৌর আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে পৌর মিলনায়তনে দুপুরে আয়োজিত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গৌরীপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও কাউন্সিলর আব্দুর রউফ মোস্তাকিমের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেনÑ ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ সদস্য এইচএম খায়রুল বাসার, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম দিপু, সাবেক ছাত্র নেতা আবু কাউসার চৌধুরী রন্টি, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো. সোহেল রানা প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেনÑ গৌরীপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ নাজিম উদ্দিন, প্যানেল মেয়র-২ দিলুয়ারা আক্তার, প্যানেল মেয়র-৩ সংরক্ষিত মোসাম্মৎ রোজিনা আক্তার চৌধুরী, কাউন্সিলর ও পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন বাচ্চু, ছাত্রনেতা সৈয়দ রাফসান জাহান অভি প্রমুখ।
মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি জানান, বাগেরহাটের মোংলা উপজেলায় আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। মোংলা উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ এবং সব সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে গতকাল বুধবার দিবসটি পালন উপলক্ষ্যে সকালে দলীয় কার্যালয় দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় মোংলায় আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে মোংলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর ছবিতে ফুলের মালা দিয়ে সম্মান প্রদর্শন করা হয়। দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
বক্তারা বলেন, অনেক আন্দোলন সংগ্রাম, সম্ভাবনা অর্জন সবকিছু মিলিয়ে আওয়ামী লীগ, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের স্বাধীনতা এক অভিন্ন সত্তা। আওয়ামী লীগই বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বাধীন করেছিল। আজকে আমরা যে আকাক্সক্ষা ও ইচ্ছা নিয়ে ২৩ জুন পালন করার প্রস্তুতি নিয়েছিলাম করোনা মহামারির কারণে সেটি সম্ভব হয়নি। এটাই বাস্তবতা। সেই বাস্তবতাকে মেনে নিয়েই সীমিত পরিসরে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করছি।
কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি জানান, বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন। ১৯৫৫ সালে আত্মপ্রকাশ করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা।
তিনি বলেন, ১৯৫৫ সালে অসম্প্রদায়িক দল হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আত্মপ্রকাশ করে, কাকমারী সম্মেলনের মাধ্যমে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তৎকালীন সভাপতি নির্বাচিত করা হয় মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী, এবং সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয় শামসুল হককে, সিনিয়র জয়েন্ট সেক্রেটারি করা হয় বাঙালির মুক্তি সংগ্রামের অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। ব্রিটিশ বেনিয়াদের হাত থেকে যখন সাম্প্রদায়িক পাকিস্তান রাষ্ট্র গঠিত হয় তখন বাঙালি বুকভরা আশা বেধে ছিল যে আমাদের অধিকার আমরা প্রতিষ্ঠিত করতে পারব, কিন্তু পশ্চিমা পাকিস্তানীরা বাঙ্গালীদের অধিকারে সবসময় হস্তক্ষেপ করে। পশ্চিমা পাকিস্তানিরা প্রথমে পূর্ব বাংলার মানুষের ভাষার অধিকার নিয়ে হস্তক্ষেপ করে তখন থেকে শুরু হয় ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন, ১৯৫৪ সালের ৬ দফা, ৬৯ সালের গণঅভ্যুত্থান, ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধে অবদান রাখেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ১৯৭১ সালের ৭ ই মার্চ বঙ্গবন্ধু রেসকোর্স ময়দানে ভাষণ দিয়েছিল এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম, সেই বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণার পর বাংলাদেশে দীর্ঘ নয় মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জন করে। বঙ্গবন্ধুর পক্ষে তখন স্বাধীনতার ঘোষণা করেন মেজর জিয়াউর রহমান। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার বহুপূর্বে ১৯৪৮ সালের চৌঠা জানুয়ারি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠা লাভ করে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে বাংলাদেশের প্রতিটি আন্দোলনে ছাত্রলীগের অগ্রণী ভূমিকা ছিল।
১৯৭১ সালের ২৬ শে মার্চ স্বাধীনতা লাভ করে বাংলাদেশ, আর তখন থেকেই বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রকে নিয়ে ষড়যন্ত্র লিপ্ত হয় বিভিন্ন দেশ, আমেরিকার সম্রাজ্যবাদ থেকে শুরু করে সবাই এ দেশকে নিয়ে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়, কিন্তু বঙ্গবন্ধুর একক ক্ষমতা এবং সাহসী ভূমিকার কারণে কেউ বাংলাদেশকে নিয়ে তেমন কিছু করতে পারেনি। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সংগ্রাম থেকে শুরু করে দেশের অর্থনীতির উন্নতির সমৃদ্ধির সবকিছুতে একধাপ এগিয়ে আছে বাংলাদেশে আর এই এগিয়ে যাওয়ার পিছনে নেতৃত্ব দিচ্ছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজগুলোকে আজ সমাপ্ত করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে তারই কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা। বিশ্ব ব্যাংক যেদিন পদ্মা সেতুর কথা বলেছিল বাংলাদেশকে ঋন দেওয়া যাবে না, সেদিন শেখ হাসিনা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিল আমাদের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু করব, আজকে পদ্মা সেতু দৃশ্যমান, আজকে যেখানে নোয়াখালী থেকে ঢাকা যেতে সাত-আট ঘণ্টা সময় লাগত সেখানে এখন আমরা দুই তিন ঘণ্টায় নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে চলে আসতে পারি, এই অবদান বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের এই অবদান শেখ হাসিনার। অপশক্তিদের উদ্দেশ্যে মেয়র মির্জা বলেন, সকলের জন্য দরজা খোলা আছে কেউ যদি রাজনীতি করতে চায় আমি সেখানে আহ্বায়ক কমিটি করে দিয়েছি তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তারা রাজনীতি করবে, তবে ২/৪ জনের বিষয়ে আমার কিছু কথা আছে, মিজানুর রহমান বাদল কে আমরা রেজুলেশনের মাধ্যমে বহিষ্কার করেছি, সে আর এখানে কোনো রাজনীতি করতে পারবে না এবং আমার ভাগিনা ওই রামপুরের কুলাঙ্গার রিমন কখনো দলে আসতে পারবেনা, ফখরুল ইসলাম রাহাদ যে একজন মাদক ব্যবসায়ী মাদকসম্রাট ও মাদক সম্রাটের বন্ধু সেও আর রাজনীতি করতে পারবে না। খিজির হায়াত এবং নুরনবী চৌধুরী, রংমালার আব্দুল¬াহ এরা কখনো বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কোনো কার্যক্রম করতে পারবে না। বাকি যারা আছে তারা যদি রাজনীতি করতে হয় প্রথমে তাদেরকে ক্ষমা চাইতে হবে তারপর বিবেচনা করা যাবে তাদের জন্য কি পদ রাখা যায়। কোম্পানীগঞ্জে চলছে অস্ত্রের রাজনীতি, অস্ত্রের রাজনীতির বিষয়ে মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা বলেন, প্রশাসনের প্রতি আমি দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলছি, অস্ত্র উদ্ধার করতে হবে অস্ত্র উদ্ধার না হলে এখানে সংঘাত লেগে থাকবে। আমার লোকদের কাছে যদি অস্ত্র থাকে বলেন আমি সেগুলো জমা দিয়ে দিব। অস্ত্র উদ্ধার করতে হবে আমরা চাই কোম্পানীগঞ্জের শান্তি। বাদলকে আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, সে একজন ভূমিদস্যু তার কাছে একজন মুক্তিযোদ্ধার জায়গায়ও নিরাপদ নয়। উপজেলায় কোয়াটারের পেছন এক মুক্তিযোদ্ধার ৫ শতাংশ জায়গা ছিল সে জায়গাটিও জবর দখল করে বাড়ি নির্মাণ করেছে বাদল। পরে আদালতের নির্দেশে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে সে কাজ করতে পারে নাই।

কাদের মির্জা বলেন, আপনারা খবর নিয়ে দেখেন চরএলাহী থেকে মিরেরপোল পর্যন্ত বড় বড় কাজগুলো কে করে ? চরএলাহী, দিয়ারা বালুয়া, গুচ্ছগ্রাম হাজার হাজার একর জমি আজকে তাদের দখলে, ভূমিহীনদের জায়গাগুলো উদ্ধার করে ভূমিদস্যু বাদল থেকে তাদেরকে ফিরিয়ে দিতে হবে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইস্কান্দার হায়দার চৌধুরী বাবুল, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইউনুস সহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ।
আরও বক্তব্য দেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবু নাসের, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল হক, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট শাহিদুর রহমান তুহিন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি সাহাজ উদ্দিন মামুন, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আরিফুর রহমান, বসুরহাট পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাধারণ সম্পাদক রাজু খান, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক হামিদুল¬াহ হামিদ, ছাত্রলীগ নেতা ইয়াসির আরাফাত ও খান শিহাবুর রহমান শিহাব প্রমুখ।
ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধি জানান, বাংলাদেশ আ.লীগের ৭২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী নীলফামারীর ডিমলায় বিভিন্ন আয়োজনে স্বাস্থ্য বিধি মেনে পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে  বুধবার সকাল ৯ টায় উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ, আলোচনাসভা ও বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা হলরুমে আ.লীগের সাধারন সম্পাদক আনোরুল হক সরকার মিন্টুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা তবিবুল ইসলাম, ছাত্রলীগের আহবায়ক আবু সায়েম সরকারের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন সদর ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বাবু নীরেন্দ্র নাথ রায়, সাবেক (ভারপ্রাপ্ত) সাধারণ সম্পাদক সহিদুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইদুল বারী, আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক বাবু শৈলেন চন্দ্র রায় প্রমূখ। এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *