সিনেটরদের বিরোধীতায় মার্কিন প্রতিরক্ষা বিল পাস

আন্তর্জাতিক

অনলাইন ডেস্ক: গত চার বছরে প্রেসিডেন্ট পদে দায়িত্বপালনকালে কখনো ট্রাম্পের ভেটো উপেক্ষিত হয়নি। তবে শেষ সময়ে এসে নিজ দলের সিনেটরদের বিরোধীতায় এমন বাস্তবতার মুখোমুখি হতে হলো ট্রাম্পকে। গত চার বছরে এর আগে মোট আটবার ভেটো দিয়েছেন ট্রাম্প। তবে কোনোটিই তিনি ঠেকাতে পারেননি।

মার্কিন প্রতিরক্ষা বিল চীন ও রাশিয়াকে সহায়তা করবে বলে অভিযোগ এনে তাতে ভেটো দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে নিজ দলের সিনেটররাও বিলের পক্ষে ভোট দেয়ায় ট্রাম্পের ভেটো কোনো কাজে আসেনি। দুই তৃতীয়াংশ ভোটে পাস হয়েছে এবারের মার্কিন প্রতিরক্ষা বিল।

নতুন বছরের অধিবেশনে ট্রাম্পের ভেটো উপেক্ষা করতে দুই তৃতীয়াংশ ভোটের প্রয়োজন ছিল। শেষে বিলটি ৮১-১৩ ভোটের বিশাল ব্যবধানে পাস হয়।

এছাড়া ট্রাম্প করোনা সহায়তা বিলে নির্দিষ্ট মার্কিনিদের ৬০০ ডলার না দিয়ে ২০০০ ডলার দেয়ার দাবি জানিয়েছিলেন। সেই আবেদনও এদিন বাতিল করে সিনেট।

এর আগে মার্কিন প্রতিরক্ষা বিলে ভেটো দেন ট্রাম্প। এমাসেই ৭৪০ বিলিয়ন ডলারের এই বিল বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতায় পাস হয়েছে কংগ্রেসে। ট্রাম্প বলেছিলেন, এই বিলটি আসলে রাশিয়া এবং চীনের জন্য একটি উপহার।

এই বিল আইন হলে তা কেবল অন্যায় হবে না, অসাংবিধানিক হবে। যদিও সংবিধানের কোনো ব্যাখ্যা ট্রাম্প দেননি।

ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ শিবিরের বক্তব্য, সামরিক বিলে ভেটো না দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন প্রেসিডেন্টের পরামর্শদাতারা। কারণ, বিলটি কংগ্রেসে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতায় পাস হয়েছিল। নিয়ম হলো, কংগ্রেসে বিল পাস হওয়ার পরে তা প্রেসিডেন্টের অনুমোদনের জন্য পাঠানো হয়।

প্রেসিডেন্ট কোনো কারণে অনুমোদন না দিলে তা ফিরে আসে কংগ্রেসে। এরপর পার্লামেন্টের দুই কক্ষে বিলটি দুই-তৃতীয়াংশ ভোট পেলে প্রেসিডেন্টের অনুমোদন ছাড়াই তা আইন হয়ে যায়। এই বিলটির ক্ষেত্রে তেমনই ঘটেছে। ট্রাম্পের রিপাবলিকান সেনেটররাও বিলটির পক্ষে ভোট দিয়েছেন।

আগামী ২০ জানুয়ারি হোয়াইট হাউস ছাড়তে হবে ট্রাম্পকে। নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন জো বাইডেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *