সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি নিয়োগ নিয়ে উত্তপ্ত মার্কিন রাজনীতি

আন্তর্জাতিক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

সব ছাপিয়ে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি নিয়োগের বিষয়টিই এখন যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতির আলোচিত বিষয়। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শিগগিরই এ নিয়োগ সম্পন্ন করতে চান। এরইমধ্যে দুইজন বাদে সব রিপাবলিকান সিনেটরের সমর্থন নিশ্চিত করেছেন ট্রাম্প। তবে নির্বাচনের আগে বিচারক নিয়োগ নিয়ে ট্রাম্পকে দ্বিতীয়বার অভিশংসনের হুমকি দিয়েছেন ডেমোক্র্যাটরা।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে করোনা, বর্ণবাদ, অর্থনৈতিক মন্দার মতো ইস্যু ছাপিয়ে মার্কিন রাজনীতিতে এখন জমজমাট বিতর্ক সুপ্রিম কোর্টের নতুন বিচারক নিয়োগ নিয়ে।

ট্রাম্প চান, ভোটের আগেই বিচারক নিয়োগ সম্পন্ন করতে। এজন্য শনিবারই তার মনোনীত প্রার্থীর নাম ঘোষণা করবেন তিনি।

মঙ্গলবার রিপাবলিকান সিনেটর মিট রমনি জানিয়েছেন, ট্রাম্পের মনোনীত প্রার্থীকে সমর্থন দেবেন তিনি। আগেই সমর্থন ছিল ৫০ রিপাবলিকান সিনেটরের। ফলে রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রিত সিনেটে ট্রাম্পের এই ইচ্ছে পূরণ কঠিন কিছু নয়।

যদিও ২০১৬ সালের নির্বাচনের আগে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ওবামার মনোনীত সুপ্রিম কোর্টে একজন বিচারপতির নিয়োগ সিনেটে আটকে দিয়েছিল রিপাবলিকানরা।

নির্বাচনের আগে বিচারপতি নিয়োগে ট্রাম্পের তোড়জোড়ে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ এনেছেন ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেন। কংগ্রেসের নিম্নকক্ষের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি জানান, প্রয়োজনে অভিশংসন প্রস্তাব আনা হবে।

পেলোসির কথার জবাব দিতে দেরি করেননি ট্রাম্প। তিনি ব্যঙ্গ করে বলেন, ‘ডেমোক্র্যাটরা যেন এখনই তাকে অভিশংসনের পদক্ষেপ নেন’।

শুক্রবার উদারপন্থী বিচারক রুথ গিন্সবার্গের মৃত্যুতে সুপ্রিম কোর্টের ৯ সদস্যের বেঞ্চে পাঁচ ‘রক্ষণশীল’ বিচারকের বিপরীতে উদারপন্থী বিচারক রয়েছেন তিনজন। এখন ট্রাম্প আরেক কট্টর রিপাবলিকান সমর্থক বিচারপতি নিয়োগ দিলে উদারপন্থী বিচারকের তুলনায় রক্ষণশীলরা হবে দ্বিগুণ।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *