সোনাহাট স্থলবন্দরে হুইল লোডারের চাবি হস্তান্তর

সারাবাংলা

রফিকুল ইসলাম, কুড়িগ্রাম থেকে
কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার সোনাহাট স্থলবন্দরে হুইল লোডার যন্ত্রের চাবি হস্তান্তর করা হয়েছে। শ্রমিকের পরিবর্তে যন্ত্রের ব্যবহার করে অর্থ ও সময় সাশ্রয়ের মাধ্যমে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির লক্ষ্যে মালামাল লোডের ক্ষেত্রে হুইল লোডার যন্ত্রের গুরুত্ব অপরিসীম। গত রোববার বিকেলে ভূরুঙ্গামারী উপজেলাধীন সোনাহাট স্থলবন্দরে মাটি ও পাথর লোডিং এর জন্য জাপানী ব্র্যান্ডের হুইল লোডার যন্ত্র মডেল এফএল ৯৩৬ এইচ এর চাবি হস্তান্তর করা হয়েছে। প্রায় ৩৫ লাখু টাকা মূল্যের হুইল লোডার যন্ত্রটি ক্রয় করেছে স্থলবন্দর এলাকার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী রুমানা ট্রেডার্সের প্রোপাইটর মো. শফিকুল ইসলাম। হুইল লোডার যন্ত্রের চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেনÑ সোনাহাট স্থলবন্দর হ্যান্ডেলিং শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হামিদুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাতেন। এসিআই মটরস্ এর টেরিটরি কর্মকর্তা হামিদুর রহমান, সার্ভিস ইনচার্জ জান্নাতুল ফেরদৌস, রিকভারী কর্মকর্তা এরশাদুল হক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতারা। এসময় এসিআই মটরস এর টেরিটরি কর্মকর্তা হামিদুর রহমান জানায়, এসিআই মটরস এর সরবরাহকৃত হুইল লোডার যন্ত্রটি ৫ টন ওজনের মালামাল বহন করতে পারে। ১২ ফুট উচ্চতায় মালামাল ডাম্পিং করতে পারে। ঘণ্টায় জ্বালানী খরচ ৬-৮ লিটার। এসিআই মটরস থেকে হুইল লোডার যন্ত্রটি ক্রয়ের পর ১৮ মাস ফ্রি সার্ভিস সুবিধা দেওয়া হয়। এ যন্ত্রটির মাধ্যমে যেখানে ১০ জন শ্রমিকের একটি ট্রাক লোড করতে ২ ঘণ্টা সময় লাগে সেখানে হুইল লোডার দ্বারা ১০ মিনিটেই লোড এর কাজ সম্পন্ন করা যায়। এ যন্ত্রটি সোনাহাট স্থলবন্দর এলাকায় সংযোজন হওয়ায় অর্থনৈতিক উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *