স্কুল জীবনের প্রিয় গান মেয়েকে ডেডিকেট করলেন মিথীলা

বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক: জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। ভারতের জনপ্রিয় নির্মাতা সৃজিত মুখার্জিকে বিয়ে করার পর কলকাতায় যাতায়াত বেড়েছে তার। সংসার ও অভিনয়ের পাশাপাশি মেয়ে আয়রাকে সময় দিচ্ছেন। মিথিলার আরেক পরিচয় তিনি গায়িকাও।

সম্প্রতি অঞ্জন দত্তের জনপ্রিয় গান ‘টিভি দেখোনা’ গানটি গিটার বাজিয়ে গাইলেন মিথিলা। সেই ভিডিও আপলোড করেছেন নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে। ছবির ক্যাপশনে মিথিলা লেখেন, স্কুল জীবন থেকে এই গান অনুপ্রাণিত করেছে, গানটি মেয়েকে ডেডিকেট করছেন। কিছুটা ধমকের সুরে লিখেছেন, ‘বলেই যাচ্ছি, টিভি দেখিস না, মোবাইল ফোন দেখিস না, আকাশটা দেখ।’

মিথিলার অনেক পরিচয়। শিশুদের নিয়ে কাজ করেন। পাশাপাশি এখনও ‘ছাত্রী’ তকমাও ঘোচেনি। বিদেশের ইউনিভার্সিটি থেকে পড়াশোনা করছেন। দুই বাংলায় এখন সমানতালে কাজ করছেন। মাত্রই রাজর্ষি দে-র ‘মায়া’র শুটিং শেষ করেছেন। ইতোমধ্যে টলিপাড়ায় একগুচ্ছ নতুন প্রজেক্টের জন্য চুক্তি সেরে ফেলেছেন সৃজিত ঘরনি। বাংলা নাটকের পরিচিত মুখ মিথিলার রূপালি পর্দায় যাত্রা শুরু হয় ‘অমানুষ’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে।

মিথিলার টলিউডে অভিষেক হচ্ছে শেক্সপিয়ারের কালজয়ী নাটক ‘ম্যাকবেথ’-এর অনুপ্রেরণায় তৈরি ছবি ‘মায়া’র হাত ধরেই। এ ছবিতে মাহিরা থেকে মায়া হয়ে ওঠার নানা জার্নিতে ধরা দেবেন মিথিলা। রাজর্ষি দে-র ‘মায়া’তে মিথিলা ছাড়াও দেখা মিলবে কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়, রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায়, অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, দেবলীনা কুমার, সুদীপ্তা চক্রবর্তী, সৌরভ দাস, তনুশ্রী চক্রবর্তী সহ আরও অনেকের। মায়া-তে অভিনেত্রী তিনটি আলাদা বয়সে, ভিন্ন ভিন্ন লুকে ধরা দেবেন। এছাড়া তার হাতে রয়েছে রিঙ্গোর আগামী ছবি ‘আ রিভার ইন হেভেন’ এর কাজ।

মেয়ে আয়রা মিথিলা ও গায়ক তাহসানের সন্তানের। তাদের বিবাহবিচ্ছেদের কয়েকবছর পর সৃজিত মুখার্জিকে বিয়ে করেন মিথিলা। কিন্তু বিচ্ছেদ হয়ে গেলেও মেয়ের কারণেই তাহসানের সঙ্গে বন্ধুত্বের সম্পর্ক এখনও রয়ে গেছে। আয়রা কখনও মায়ের কাছে, কখনও বাবার কাছে থাকে। এ নিয়ে তাদের পরিবারে কোনো সমস্যা নেই। আয়রা মূলত মিথিলার কাছেই থাকে।

তবে সম্প্রতি মিথিলা-তাহসান একসঙ্গে একটি কাজ করে সমালোচনার মুখে পড়েন। সেই সময় মিথিলা জানান, বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে গেছে মানে কখনও একসঙ্গে কাজ করা যাবে না, তা নয়। তিনি বলেন, ‘আমি ও তাহসান আয়রার বাবা, মা।’ মেয়ের কথা ভেবেই নিজেদের সম্পর্ক তিক্ত করতে চান না বলেই জানান সৃজিত পত্নী।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *