সড়কে পড়ে থাকা বটবৃক্ষ ১৭ দিনেও সরানো হয়নি গাছ সরানোর দায়িত্ব কার?

সারাবাংলা

আকাশ হোসেন, আশাশুনি থেকে:
সাতক্ষীরার আশাশুনির বুধহাটা ইউনিয়নে কালের স্বাক্ষী হয়ে বেঁচে থাকা বৃহদাকৃত্রির বটবৃক্ষ উপড়ে পরার পর ১৭ দিন অতিবাহিত হলেও সরানো সম্ভব হয়নি। ফলে যানবাহন ও পথচারীরা চরম দুর্গতির মধ্যে রয়েছে। গত ১৯ জুন সকাল ১০টার দিকে ২ শতাধিক (অনেকের ধারনা ৩/৪ শত বছর) বছর বয়সী বটবৃক্ষটি সড়কের উপর উপড়ে পড়লে সড়কটি বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে সাতক্ষীরা থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল সেখানে উপস্থিত হয়। পরিদর্শন শেষে তারা ফিরে যায়। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা পরিষদকে অবহিত করা হলেও গাছ সরানোর কোনো ব্যবস্থা হয়নি। পাকা সড়ক বন্ধ করে পড়ে থাকা বৃক্ষ সরানোর ব্যবস্থা করার দায়িত্ব কার? এমন প্রশ্ন উত্থাপন করে এলাকার মানুষ হতভম্ব হয়ে পড়ে।
বুধহাটা ইউপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আ ব ম মোছাদ্দেক ফরেষ্ট অফিস, ইউএনও, জেলা পরিষদের সঙ্গে বারবার যোগাযোগ করেন। ফরেস্ট অফিস পারবে না জানিয়ে দেয়। ইউএনও জ্বরে আক্রান্ত থাকায় আসতে পারেননি। জেলা পরিষদকে বলা হলে তাদের পক্ষে সম্ভব নয়, যেভাবে পারেন গাছ সরানোর ব্যবস্থা নিতে পারেন বলে জানিয়ে দিয়ে দায় থেকে নিষ্কৃৃতি পেতে চেষ্টা করে। বাধ্য হয়ে চেয়ারম্যান নিজের ব্যক্তিগত তহবিল হতে ১০ হাজার টাকা দিয়ে গাছ কেটে নেওয়ার জন্য একজনের সঙ্গে চুক্তি করেন। অবশ্য গাছটি ওই ব্যক্তি ফ্রি পাবেন। তিনি দু’দিন পর গাছ কাটা শুরু করেন, কিন্তু বটবৃক্ষ কাটা যেমন কঠিন, তেমনি সময় সাপেক্ষ ব্যাপার হওয়ায় দীর্ঘ সময় লাগতে থাকে। বর্তমানে সড়কের উপর দিয়ে ছোটখাট যানবাহন চলাচল করার মত পথ বের করা হলেও সড়ক থেকে গাছ সরানো সম্ভব হয়নি। গাছটি এখনো পুরো সড়কের উপর দিয়ে আড়াআড়ি পড়ে আছে। উপজেলা-জেলা প্রশাসন, জেলা পরিষদ কেউ এগিয়ে না আসায় হাত করাত দিয়ে গাছটি কেটে নিতে দীর্ঘ সময় লেগে যাচ্ছে। আর কতদিন এলাকার মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হবে তা বলা মুশকিল।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *