হরতালে পুলিশের গাড়িতে অগ্নিসংযোগ

সারাবাংলা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হরতালে পুলিশের খাবার গাড়িতে অগ্নিসংযোগের মামলায় জামায়াতে ইসলামীর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সাবেক ও বর্তমান আমীরসহ জামায়াত-শিবিরের ২১ জনকে দুই বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। গতকাল রোববার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ পারভেজ এই রায় ঘোষণা করেন। রায়ের দুই বছরের কারাদণ্ডাদেশের পাশাপাশি প্রত্যেককে ২ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদন্ড প্রদান করা হয়। এছাড়াও প্রত্যেক আসামীকে প্যানেল কোডের ১৪৩ধারায় তিন মাসের কারাদন্ড ও ৫০০টাকা জরিমানা করা হয়।
রায় ঘোষণাকালে আদালতে ২১জন আসামীর মধ্যে ৭জন আসামী উপস্থিত ছিলেন। আদালতে উপস্থিত আসামীরা হলেন শহিদুল ইসলাম, সানাউল্লাহ, কাজি আবু জাহের, এমরানুর রহমান, মহসিন মিয়া, ফরহাদ উদ্দিন ও আজিজুল হাকিম তানভিন।
পলাতক কারাদন্ড প্রাপ্ত আসামীরা হলেন জেলা জামায়াতের সাবেক আমীর প্রধান আসামী নজরুল ইসলাম খাদেম, বর্তমান আমীর সৈয়দ গোলাম সারোয়ার, কাজি ইয়াকুব আলী, মাওলানা হেলাল উদ্দিন ভূইয়া, গোলাম ফারুক, রুস্তম আলী, নিপু, ছাত্র শিবিরের জেলার সাবেক সভাপতি রাসেদুল করিম রানা, নূরুল্লাহ, আশরাফুল ইসলাম বাবু, সিরাজুল ইসলাম হুমায়ুন, জাহিদুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর আলম ইকবাল, বিল্লাল আহমেদ।
আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালের ডিসেম্বরের ৪তারিখে হরতালে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের পীরবাড়িতে পুলিশের খাবারের গাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয়। এই ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ১৩জনের নাম উল্রেখ্যসহ অজ্ঞাত আরও ২২জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করব। পরে ২০১৩ সালের আগস্টের ২১জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট প্রদান করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বর্তমান বিজয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ও তৎকালীন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক আতিকুর রহমান। অবশেষে রবিবার ২১জনকেই অভিযুক্ত করে আদালত দুইবছরের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *