হাওয়াই মিঠাই বিক্রি করে চলে সংসার

সারাবাংলা

রাজিবুল হক সিদ্দিকী, কিশোরগঞ্জ থেকে:
হাওয়াই মিঠাই নেবে…..হাওয়াই মিঠাই….মিষ্টি নরম গোলাপি সাদা হাওয়াই মিঠাই…..’ এভাবেই হাক-ডাক দিয়ে হাওয়ায় মিঠাই বিক্রি করছেন মোস্তফা। মোস্তফার অভাব অনটনের সংসার। ছোট বেলায় দুর্ঘটনায় হাত হারিয়ে কষ্টে দিন চলে তার। বাবা-মা সহ পরিবারের সদস্য ৭ জন। তারপরও হাল ছেড়ে দেননি। স্বাবলম্বী হতে আকাশ ছোঁয়া স্বপ্ন নিয়ে এগুতে থাকেন। তার অবিরাম পরিশ্রমে সংসারের অভাব দূর হয়। দিনে দিনে অক্লান্ত পরিশ্রম করে সাবলম্বী হয়ে ওঠার দিন গুনছেন। তিনি হলেন কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার কাদির জংগল ইউনিয়নের সতেরদরিয়া গ্রামের বাসিন্দা মো. মোস্তফা। তিনি একজন হাওয়াই মিঠাই বিক্রেতা।
শিশুদের অতি প্রিয় এ মিঠাই এখন কিশোরগঞ্জের গুরুদয়াল কলেজ মাঠ মুক্ত মঞ্চে বিক্রি করছেন সকাল সন্ধ্যা। তা ছাড়া প্রাথমিক, মাধ্যমিকসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বাজার এলাকা, গ্রামে গ্রামে বা কোন মেলা উৎসব, সভাস্থলে চমকপ্রদ হাওয়াই মিঠাই বানিয়ে হাজির হন মোস্তফা। হাওয়াই মিঠাই বানিয়ে শিশু, কিশোরদের মন জয় করার চেষ্টায় সে অবিরাম পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। প্রতিদিন ৫শ টাকা থেকে এক হাজার টাকা বিক্রি হয়। সেই টাকায় চালে তার সংসার। শুরু করেন মিঠাই বানানো ব্যবসা। এভাবে একেক এলাকায় একেক দিন বিক্রি শুরু করে সংসার চালাতে থাকে। স্বাবলম্বী হতে থাকে তার অভাবের সংসার। মোস্তফা জানান, এখন বেশ সুখে দিন কাটছে তার। এ মিঠাই বানানোর কাজ খুবই কষ্টকর। স্বাবলম্বী হওয়ার আশায় আমাকে পরিশ্রম করে এ ব্যবসা করতেই হচ্ছে। ভালো বলে আমি এ পেশা বেছে নিয়েছি। এটি শিশুদের প্রিয় খাবার।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *