হেফাজতের হরতাল

সারাবাংলা

কমলগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া
কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি:
হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালে  রোববার মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জে মুন্সীবাজার ও বাবুরবাজার এলাকায় সকাল ১০টা থেকে দুপুর পর্যন্ত হেফাজত কর্মী ও পুলিশের কয়েক দফা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। হেফাজত কর্মীদের বিক্ষোভের কারণে মুন্সীবাজারে খাবার ও ঔষধের দোকান ব্যতীত সকল প্রকার দোকানপাঠ বন্ধ ছিল। গতকাল রোববার সকাল ১০টা থেকে হেফাজত নেতা মাওলানা মোহাম্মদ জাকারিয়া ও মাসুক আলীর নেতৃত্বে হেফাজত কর্মীরা মুন্সীবাজার, বাবুর বাজার ও দেওড়াছড়া সড়কে যাত্রীবাহী সিএনজি অটো আটকিয়ে যান চলচাল বন্ধ করে দেয়। এ খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক ফয়েজ আহমদের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল এসে বিক্ষোভকারী হেফাজত কর্মীদের ধাওয়া করে। হেফাজত কর্মীরা পাল্টা ইটপাটকেল ছোড়ে পুলিশ সদস্যদের উপড়ে। হেফাজত কর্মীদের ছোড়া ইটপাটকেলে এক সংবাদকর্মী ও এক পুলিশ সদস্য হাল্কাভাবে আহত হয়েছে। এক পর্যায়ে পুলিশ সদস্যরা শক্তি বৃদ্ধি করে ধাওয়া করলে হেফাজত কর্মীরা সড়ক ছেড়ে পালিয়ে যায়। এর পর থেকে শমশেরনগর-মুন্সীবাজার-মৌলভীবাজার সড়কে যান চলাচল কিছুটা স্বাভাবিক হয়। হেফাজত নেতা মাওলানা মাসুক আলী বলেন, আমরা কোন প্রকার অস্থিরতা করিনি। উপর থেকে নির্দেশনা আছে,যাতে করে কারো ক্ষতির কারন না হয় এই হরতালে। আমাদের হরতাল সফল হয়েছে। কমলগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সোহেল রানা বলেন, পুরো উপজেলা স্বাভাবিক থাকলেও মুন্সীবাজার ও বাবুর বাজার এলাকায় হেফাজত কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করেছিল। তারা জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা করেছিল। তবে কমলগঞ্জ থানার পুলিশ সক্রিয় থাকায় হেফাজতকর্মীরা পালিয়ে যায়। একই সাথে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *