হোসেনপুরে নৃশংস নির্যাতনে গৃহকর্মী হত্যা

সারাবাংলা

আব্দুল কাদির, হোসেনপুর থেকে :
কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলায় মরিয়ম আক্তার নামে সাত বছরের এক শিশু গৃহকর্মীকে নির্মম নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে মর্মে অভিযোগ উঠেছে। এক দম্পতি শিশুটিকে গৃহকর্মী হিসেবে দুই মাস আগে কুমিল্লায় নিয়ে যায়। গতকাল বুধবার ভোরে ওই দম্পতি শিশুটির লাশ নিয়ে হোসেনপুর উপজেলার বীরপাইকসা গ্রামে গেলে জনতা তাদের আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেন।
জানা যায়, উপজেলার সাহেদল ইউনিয়নের বীর পাইকসা গ্রামের অটোরিকশা চালক সিরাজুল ইসলামের মেয়ে মরিয়ম। নিতান্ত গরিব বলে শিশুটিকে ওই বাসায় দিয়েছিলেন তিনি। আদরের মরিয়ম ফিরল ঠিকই, কিন্তু লাশ হয়ে। ছোট্ট শিশুটির মুখ, শরীর ও হাত-পায়ে অসংখ্য জখমের দাগ। নৃশংস নির্যাতনে শিশুটির মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। স্থানীয়রা অভিযুক্ত দম্পতির গাড়ির সামনে বিক্ষোভ মিছিল করে তাদের বিচার দাবি করেন। প্রতিবেশি নূর উদ্দিনের মেয়ে জান্নাতুল নাইম গৃহকর্মী হিসেবে দুই মাস আগে মরিয়মকে স্বামী এলাহী শুভর কুমিল্লায় বাসায় নিয়ে যান। এলাহী শুভর বাড়ি বাহ্মবাড়িয়ায়। প্রাইভেট কোম্পানির চাকরি সূত্রে বসবাস করেন কুমিল্লার গৌরিপুর উপজেলায়। সেই বাসাতেই দিনের পর দিন নির্যাতনের শিকার হয়ে মারা যায় শিশুটি।
হোসেনপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) নূর ইসলাম জানিয়েছেন, অভিযুক্ত দম্পতিকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। হত্যার কারণ জানতে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোগরঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *