হোয়াইট হাউসে করোনার ছড়াছড়ি

আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনা নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উদাসীনতার ফলে গোটা হোয়াইট হাউস এখন করোনাপুরীতে পরিণত হয়েছে। একের পর এক কর্মকর্ত-কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। ওভাল অফিসের জয়েন্ট চিফ অব স্টাফ চেয়ারম্যান মার্ক মিলি ও পেন্টাগনের অন্য শীর্ষ জেনারেলরা কোয়ারেন্টাইনে গিয়েছেন। করোনা পজিটিভ আসা কোস্টগার্ড অ্যাডাম চার্লস রে’র সংস্পর্শে এসেছিলেন তারা।

হোয়াইট হাউসে যাওয়ার পর রিপাবলিকান দলের তিনজন সিনেটরের করোনা পজিটিভ এসেছে। আগেই আক্রান্ত হয়েছিলেন হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি কেলি ম্যাকেনলি ও ট্রাম্পের পরামর্শক হোপ হাইক। ট্রাম্প সুপ্রিম কোর্টের বিচারক হিসেবে অ্যামি কনলি বেরেটের নাম ঘোষণা করার ইভেন্টে যারা উপস্থিত ছিলেন, তাদের মধ্যে অ্যামিসহ অনেকেরই পজেটিভ এসেছে। ওই ইভেন্টে শতাধিক লোক উপস্থিত ছিলেন।

প্রেসিডেন্ট বিতর্কের প্রস্তুতি নিতে ট্রাম্পকে সহায়তা করা দুজন পরামর্শক করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি ও দুজন অধীন কর্মীর এ সপ্তাহেই করোনা পজিটিভ এসেছে। ট্রাম্পের সহকারী ও সার্বক্ষণিক তার সঙ্গে নিয়োজিত এক সেনাসদস্যেরও করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। হোয়াইট হাউসের ইস্ট রুমে ‘গোল্ড স্টার’ মিলিটারি পরিবারগুলোর জন্য রিসিপশনের আয়োজন করেন ট্রাম্প।

ওই অনুষ্ঠানে যারা অংশ নিয়েছেন, তারা মাস্ক পরা ও শারীরিক দূরত্বের ধার ধারেননি। ইভেন্টে অংশ নেওয়া মার্ক মিলি, সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর প্রধানসহ সাইবার কমান্ড দলের প্রধানের করোনা নেগেটিভ এলেও পজিটিভ ব্যক্তির সংস্পর্শে আসায় তারা স্বেচ্ছা কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের করোনা পজিটিভ এলেও ফার্স্ট ডটার ইভানকা ট্রাম্প ও তার স্বামী জ্যারেড কুশনারের করোনা টেস্ট নেগেটিভ এসেছে। তবে ইভানকা বলেছেন এখন থেকে তিনি ঘরে থেকেই অফিস করবেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *