২৪ ঘণ্টায় খুলনার তিন হাসপাতালে ১৭ জনের মৃত্যু

জাতীয় লিড ১ সারাবাংলা

ডেস্ক রিপোর্ট: খুলনার তিন হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (২৬ জুন) সকাল ৮টা থেকে রোববার (২৭ জুন) সকাল ৮টা পর্যন্ত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়।

এর মধ্যে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ডেডিকেটেড ইউনিটে ১২ জন, খুলনা ২৫০ জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে দুজন এবং বেসরকারি গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা করোনা হাসপাতালে রেডজোনে ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে নয়জন এবং উপসর্গে তিনজন মারা গেছেন। খুলনার ১৩০ শয্যার করোনা হাসপাতালে ১৬০ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এর মধ্যে রেডজোনে ৯৬ জন, আইসিইউতে ১৯ জন, এইচডিইউতে ২০ এবং ইয়ালোজোনে ২৫ জন ভর্তি রয়েছেন। ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ৪৩ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৯ জন।

গাজী মেডিকেলের স্বত্বাধিকারী গাজী মিজানুর রহমান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এরা হলেন- খুলনার নেভিগেট এলাকার সামসুল আলম (৬৩), সাতক্ষীরার পলাশপুর এলাকার আব্দুস সামাদ (৭৫) এবং নড়াইলের নরাগাতি এলাকার ঝর্ণা বেগম (৪৬)। এ হাসপাতালে ৮৮ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার মধ্যে আইসিইউতে ছয়জন এবং এইচডিইউতে পাঁচজন। এ ছাড়া হাসপাতালের পিসিআরমেশিনে ২৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৯জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

খুলনা ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এরা হলেন- বাগেরহাটের কাশিমপুর এলাকার আতিয়ার রহমান মল্লিক (৬৫) এবং সাতক্ষীরার কালীগঞ্জের অলি উল্লাহ (৬৭)। এখানে মোট চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৮ জন।

খুলনা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ জানান, শনিবার (২৬ জুন) রাতে খুমেকের পিসিআর মেশিনে মোট ৪৭৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ২৩৬ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। যার মধ্যে খুলনার ২০১ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ১২৯ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ ছাড়া বাগেরহাটে ৯৩ জন, যশোরে আটজন, সাতক্ষীরায় তিনজন, নড়াইলের একজন, পিরোজপুরের একজন এবং ঝিনাইদহের দুইজন রয়েছেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *