২৪ ঘণ্টায় বরিশাল বিভাগে কমেছে মৃত্যু ও শনাক্ত

জাতীয় সারাবাংলা

ডেস্ক রিপোর্ট :বরিশাল বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে উপসর্গ নিয়ে ছয়জন এবং করোনায় পাঁচজন মারা গেছেন। এ সময়ে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ১৭০ জনের। আরটিপিসিআর ল্যাবে শনাক্তের হার ৩০ দশমিক ৮৪ শতাংশ।

শনিবার (১৪ আগস্ট) বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ও শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালকের কার্যালয় থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস জানান, জেলাভিত্তিক করোনা সংক্রমণ তথ্যে দেখা গেছে, গত ২৪ বরিশাল জেলায় শনাক্ত হয়েছে ৪৭ জন। এ পর্যন্ত এই জেলায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ৭১৭ জন। সুস্থ হয়েছেন ৮ হাজার ৮২৪ জন। ২৪ ঘণ্টায় তিনজনের মৃত্যু নিয়ে মোট মারা গেছে ১৯৪ জন।

পটুয়াখালীতে নতুন শনাক্ত হয়েছে ২০ জন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৫৮১ জন। ২৪ ঘণ্টায় কারো মৃত্যু না হলেও মোট মারা গেছেন ১০১ জন। সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ১১২ জন।

ভোলায় নতুন ৯৩ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হলেন ৫ হাজার ৬২০ জন। ২৪ ঘণ্টায় কারো মৃত্যু না হলেও মোট মারা গেছেন ৬৬ জন। সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ১২৮ জন।

পিরোজপুরে নতুন ৭ জন শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ৯৬০ জন। ২৪ ঘণ্টায় কারো মৃত্যু না হলেও মোট মারা গেছেন ৭৯ জন। সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৬১৩ জন।

বরগুনায় নতুন দুইজন নিয়ে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৪৮৬ জন। ২৪ ঘণ্টায় একজনের মৃত্যু নিয়ে মোট মারা গেছেন ৮২ জন। সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৩৩৯ জন।

ঝালকাঠিতে নতুন একজন শনাক্ত নিয়ে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ৩৯৮ জন। ২৪ ঘণ্টায় একজনের মৃত্যু নিয়ে মোট মারা গেছেন ৬৮ জন। সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৬১১ জন।

শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালকের তথ্য সংরক্ষক জাকারিয়া খান স্বপন জানান, বিগত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের আইসোলেশনে ১৬ জন ভর্তি হন। এর মধ্যে উপসর্গ নিয়ে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালে ১৯৯ জন চিকিৎসাধীন রোগী আছেন। যার মধ্যে ৬০ জনের করোনা পজিটিভ, ১৩৯ জন আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

২৪ ঘণ্টায় ২০১ জনের নমুনা আরটি পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা করানো হয়েছে। এর মধ্যে ৬২ জন পজিটিভ ও ১১৬ জন করোনা নেগেটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, এর আগের ২৪ ঘণ্টায় (বৃহস্পতিবার) বিভাগে করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছিল ১৪ জনের। আরটিপিসিআর ল্যাবে শনাক্তের হার ২৮ শতাংশ। এ সময়ে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছিল ৪৭৩ জন।

বরিশাল বিভাগের পটুয়াখালী জেলার দশমিনা উপজেলায় ২০২০ সালের ৯ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। সেই থেকে শনিবার (১৪ আগস্ট) সকাল ৮টা পর্যন্ত বিভাগের ছয় জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৪০ হাজার ৭৬২ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৫৯০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২৩ হাজার ৬২৭ জন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *