২ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনা, নিহত ৪

সারাবাংলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের দুই জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় চারজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে অন্তত ১৩ জন। শুক্রবার দিবাগত রাতের বিভিন্ন সময়ে গাজীপুর ও সিলেট জেলায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে। দুটি দুর্ঘটনায় সমান সংখ্যক দুইজন করে প্রাণ হারিয়েছেন। ঢাকাটাইমসের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর।

গাজীপুর: জেলার শ্রীপুর উপজেলার সাতখামাইর এলাকায় ড্রাম ট্রাকের সঙ্গে একটি অটোরিকশার সংঘর্ষে দুই যাত্রী নিহত ও অন্তত তিনজন আহত হয়েছেন। হতাহতদের উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় পুলিশ।

নিহতরা হলেন ময়মনসিংহের নান্দাইলের আবু হানিফ এবং একই জেলার গৌরিপুরের সোহেল রানা। আর আহতদের মধ্যে রয়েছেন অটোরিকশা যাত্রী কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জের নামাপাড়া জঙ্গলবাড়ি এলাকার রিপা ও তার স্বামী সিদ্দিকুর রহমানসহ অজ্ঞাত পরিচয় এক যুবক।

আহত রিপা ও তার স্বামী সাংবাদিকদের জানান, গতকাল সন্ধ্যায় চার যাত্রী কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর থেকে সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশায় করে চারজন শ্রীপুরের উদ্দেশে রওনা হন। রাত পৌনে ৯টার দিকে সাতখামাইর এলাকায় অটোরিকশাটি পৌঁছলে সামনে থাকা একটি ড্রাম ট্রাক হঠাৎ গতি কমিয়ে দেয়। এসময় অটোচালক গাড়ির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে এবং ট্রাকটির পেছনে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে অটোরিকশাটির সামনের অংশ দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং অটোরিকশার চালকসহ পাঁচজন আহত হন। পরে স্থানীয় এলাকাবাসী উদ্ধার করে আমাদের শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে।

শ্রীপুর মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সুমন মিয়া জানান, হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক আবু হানিফ ও সোহেল রানাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক এমএ সাইদ লিয়ন জানান, আহত পাঁচজনের মধ্যে দুইজনকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। অপর তিনজন শঙ্কামুক্ত।

সিলেট: জেলার দক্ষিণ সুরমায় চাকা ফেটে যাত্রীবাহী বাস উল্টে দুইজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে অন্তত ১০ জন। শুক্রবার রাতে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার অতিরবাড়ি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- বালাগঞ্জ থানার পূর্ব চাঁদপুরের মৃত আজম উল্লাহর ছেলে আলী আছগর এবং চান্দাইপাড়া গ্রামের লেবু মিয়ার মেয়ে উর্মী।

সিলেট মহানগর পুলিশের দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার হোসেন জানান, শেরপুর থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী একটি বাস ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের দক্ষিণ সুরমার অতিরবাড়ি এলাকায় পৌঁছালে বাসটির সামনের একটি চাকা ফেটে খুলে যায়। এ সময় বাসটি উল্টে গেলে এর নিচে যাত্রীরা চাপা পড়েন। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে বাসের নিচ থেকে চাপা পড়া যাত্রীদের উদ্ধার করেন। এ সময় দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও গুরুতর আহত ৮ থেকে ১০ জনকে উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *